ঝারখান্ডে ভোট আটকে গেল মুকুটমনিপুরের ওয়াটার স্কুটার, স্পিড বোট

0
468

বিশেষ প্রতিনিধি, মুকুটমণিপুরঃ- প্রতিবেশী রাজ্যে ঝাড়খন্ডে ভোট তাই তোড়জোড় করেও শনিবার চালু করা গেল না ওয়াটার স্পোর্টস।

এইদিন বাঁকুড়ার সদর থেকে মুকুটমনিপুরে ছুটে আসেন জেলাশাসক, জেলা পরিষদের সভাপতি , ছিলেন রানিবাঁধর বিধায়ক ও খাতড়া মহকুমা শাসক। কিন্তু ওয়াটার স্পোর্টসের পরিকাঠামো নির্মাণের সামগ্রিক , স্পিড বোট, ওয়াটার স্কুটার সবই আটকে রইলো ঝাড়খন্ডে। তাই বাতিল করা হলো গোটা পরিকল্পনা। জেলাশাসক ডঃ উমাশঙ্কর এস অবশ্য দাবি করেন ঝাড়খণ্ডের ভোট পর্ব মিটে গেলেই এক সপ্তাহের মধ্যে ফের উদ্যোগ নেওয়া হবে প্রকল্প চালুর বিষয়ে । ২০১৬ ডিসেম্বরে প্রশাসনিক বৈঠকের পর মুকুটমণিপুর উন্নয়ন পর্ষদের ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর ২০১৭ তে ৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয় মুকুটমণিপুর সহ এলাকার ৫৬ টি মৌজা পরিকাঠামো উন্নয়নের জন্য। তখনই ঘোষণা করা হয় ১১ কিলোমিটার লম্বা মুকুটমণিপুর জলাধারে পর্যটক টানতে ওয়াটার স্পোর্টস চালু করা হবে। রানিবাঁধর বিধায়ক জ্যোৎস্না মান্ডি বলেন “এখানে ইলেকট্রিক গলফ কার ইতিমধ্যেই চালু হয়েছে । ওয়াটার স্কুটার , স্পিড বোটের বিষয়ে পর্ষদ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর একটি বেসরকারি সংস্থাকে পরিকাঠামো গড়ার দায়িত্ব দেওয়া হয় “

কিন্তু ঝাড়খন্ডে বিধানসভা ভোটের কারণে চারদিন আগেই দুই রাজ্যের সীমানা সিল করে দেওয়া হয়েছে । জেলাশাসক বলেন “ফলে আটকে পরেছে মুকুটমনিপুরের ওয়াটার স্পোর্টস এর সমস্ত সরঞ্জাম কারণ সরঞ্জাম। করন সরবরাহকারী সংস্থাটি ঝাড়খণ্ডেরই । তাই আমাদের কাজে পিছিয়ে দিতে হল।

শনিবার মুকুটমণিপুর উন্নয়ন পর্ষদের বৈঠকের পর জেলাশাসক জানান ২০২০ – ২০২১ অর্থবছরে পরিকাঠামো উন্নয়নের জন্য ২০ কোটি টাকার একটি প্রস্তাব পাঠিয়েছে রাজ্য মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের জন্য ” । উল্লেখ্য, মুকুটমণিপুর জলাধার হল এশিয়ার বৃহত্তম মাটির বাঁধ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here