নাসার থেকে পাওয়া গেলো স্বস্তির বার্তা,কেটে গেলো মৃত্যু ভয়,পাশ কাটিয়ে গেলো গ্রহাণু

0
735

এই বাংলায় ওয়েব ডেস্কঃ- স্বস্তির বার্তা জানালো নাসা।রক্ষা পেলো পৃথিবী। ২০৭৯ পর্যন্ত প্রকান্ড গ্রহাণুটি নিরাপদ দুরত্বে চলে গেলো। নাসার মতে ১৯৯৮ ও আর ২ ছিলো এই বৃহৎ গ্রহাণুটির নাম। গত ২২ বছর ধরে এই গ্রহাণুটির দিকে নজর দিয়ে বসেছিলো তারা। আজ ২৯ এপ্রিলই পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়ার কথা ছিলো এই গ্রহাণুটির।

কিন্তু পৃথিবীর মাধ্যাকর্ষণ শক্তির মধ্যে এই গ্রহাণুটি আসেনি। পৃথিবীকে অক্ষত রেখেই পাশ কাটিয়ে চলে যায় এই ‘বিধ্বংসী’ গ্রহাণু।
করোনা ভাইরাসের পর এই গ্রহাণুটির কারণে আতঙ্কিত ছিলো বিশ্ববাসী। কিন্তু সেই ফাঁড়া কেটে গেলো। জানা গেছে পৃথিবীর অনেকটা কান ঘেঁষেই বেরিয়ে যায় বিশাল এই গ্রহাণু। প্রায় দুই কিলোমিটার চওড়া ছিলো এই গ্রহাণুটি। এটি যদি একবার ও কোনোভাবে পৃথিবীকে স্পর্শ করতো তাহলেই গোটা মানবজাতি বিলুপ্ত হয়ে যেতে মুহূর্তের মধ্যেই। এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিজ্ঞানীরা।

আজ বুধবার সকালে পৃথিবী থেকে প্রায় ৬.৯ মিলিয়ন মাইল দূর থেকেই চলে যায় বিশাল গ্রহাণুটি। এর আকার ছিলো মাউন্ট এভারেস্টে পর্বতের প্রায় অর্ধেক। পৃথিবীতে এই গ্রহাণু কোনও প্রভাব ফেলতে পারেনি। যদিও ঘটনার সময় মহাকাশে সতর্ক নজর রাখেন নাসার বিজ্ঞানীরা। আর তারপরই তারা বিশ্ববাসীকে জানান স্বস্তির বার্তা।পৃথিবীকে অক্ষত রেখে ‘বিধ্বংসী’ গ্রহাণুর পাশ কাটিয়ে ‌যাওয়ার কথা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here