পাথর খাদানে “প্যাড” জোরদার আন্দোলনে নামছে সিটু

0
503

বিশেষ প্রতিনিধি, বাঁকুড়াঃ- এবার পাথর খাদানে ‘প্যাড’ সিস্টেমের বিরুদ্ধে সরাসরি লড়াই এ সিটু প্রভাবিত শ্রমিকেরা কোমর বাঁধছে শালতোড়া, মেজিয়ায়। দাবি একটাই – ঘাম ঝরিয়ে খাদান থেকে পাথর কাটার কারবারে চলবে না তোলাবাজি, সিন্ডিকেট রাজ।

সিটুর দাবি- শালতোড়া জুড়ে ছড়িয়ে থাকা পাথর খাদান ও ক্রাশার থেকে গাড়ি পিছু ৩০০ থেকে ৩০০০ টাকা তোলা আদায়ে ‘প্যাড’ চালু করতে চায় পুলিশ ও স্থানীয় কিছু দুস্কৃতির সিন্ডিকেট।


এ নিয়ে, ৫ জানুয়ারি, বিহারীনাথ পাহাড়ের একটি অতিথি শালায় কিছু পুলিশ আধিকারিক ও দুস্কৃতকারীদের একটি চক্র গোপন বৈঠক করে। ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত মোতাবেক, পার্শ্ববর্তী পুরুলিয়া জেলার বালিতোড়া গ্রামের এক কারবারি কে নির্ধারিত “তোলা” আদায়ের দ্বায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ওই বৈঠকেই ঠিক হয়- প্যাড ছাড়া কোনো পাথর বোঝাই লরি-ই রাস্তায় নামতে পারবে না।
এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদেই ৯ জানুয়ারি থেকে শালতোড়ার সমস্ত পাথর খাদান, ক্রাশারের কাজ বন্ধ করে দেয় মালিক পক্ষ। শালতোড়ায় ১৫০ টি ক্রাশার আর ১০০ র মতো পাথর খাদান আছে। এই শিল্পে কম করে ১০,০০০ শ্রমিক জড়িত।

খাদান মালিক সংগঠনের সম্পাদক বিবেক মিত্র বলেন, “বছরে রাজ্য সরকার কে ৩ কোটি ৬০ লক্ষ টাকার রয়ালিটি দি-ই আমরা। এখন আবার প্যাড কিনতে বলছে। এ সব মানবো কেন”? গোটা বিষয়টি নিয়ে জেলা ভূমি রাজস্ব আধিকারিক সব্যসাচী সরকার বলেন, “খাদান যে বন্ধ রয়েছে জানতাম না। খোঁজ খবর নিচ্ছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে”।
এদিকে দিনের পর দিন খাদান বন্ধ থাকায় শ্রমিকদের ভাতে টান পড়েছে এলাকায়। সিটুর জেলা সম্পাদক সৌমেন্দু মুখারজী জানান, “সিন্ডিকেট রাজ বন্ধ না করলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে। আন্দোলনের জোর প্রস্তুতি নিচ্ছি আমরা”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here