হাতির হানাঃ ৩ ওয়াচটাওয়ার বর্ধমান বন বিভাগে

0
532

নিজস্ব প্রতিনিধি, দুর্গাপুরঃ- জংলী হাতির ওপর নজরদারি বাড়াতে দুটি ওয়াচ- টাওয়ার বসাচ্ছে বন দপ্তর। বুদবুদ আর গলসি ব্লকে, দামোদরের পাড় বরাবর। বনদপ্তরের পদস্থ কর্তারা জানিয়েছেন, অক্টোবর মাসেই চালু হয়ে যাবে তিনটি টাওয়ার। এর মধ্যে দুটি হাতির ওপর নজরদারির জন্য আর তৃতীয়টি কাঁকসার গড় জঙ্গলে। মূলতঃ জঙ্গলে অভিযানে যাওয়া ট্রেকারদের ওপর নজরদারির জন্য। দলমার দামালেরা প্রতিবছরই নিয়ম করে হামলা চালায় পার্শ্ববর্তী বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুর আর উত্তর বাঁকুড়া বনবিভাগের জঙ্গঁলে। তারই মাঝে, দলছুট হয়ে কিছু কিছু হাতি দামোদর নদি পেরিয়ে ঢুকে পড়ে পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান জেলার বিভিন্ন লোকালয়ে। দলছুট হাতির হামলায় গত এক দশকে বর্ধমানের দুই জেলায় কম করে দেড় ডজন মানুষ মারা গেছেন। আবার এমনটাও ঘটেছে- দলছুট হাতি পানাগড় সেনা ছাউনির ভেতর ঢুকে পড়ে আর বেরুতেই চাইছেনা। সম্প্রতি দেড় বছর আগে সেনা ছাউনির জঙ্গঁলে হারিয়ে যাওয়া একটি হাতিকে উদ্ধার করা হয়। হাতি হামলার আঁচ পেতে, তাদের গতিবিধির ওপর নজদারির জন্য, বনদপ্তর দামোদর লাগোওয়া গলসি ব্লকের শিল্যাঘাট আর বুদবুদের কসবা তে দুটি ওয়াচটাওয়ার নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। পুরোটাই করছে বর্ধমান বনবিভাগ। বর্ধমানের বিভাগীয় বনাধিকারিক দেবাশিষ শর্মা জানান, “তিনটি ওয়াচ টাওয়ারের জন্য মোট ১১ লক্ষ টাকা খরচ হচ্ছে। অক্টোবরেই কাজ শেষ হবে।” তিনি আরো জানান, “শুধু হাতির পালের ওপর নজরদারি-ই নয়, গর জঙ্গঁলের ওয়াচটাওয়ারটি পর্যটকরাও ব্যবহার করতে পারবেন অরন্যের মনোরম শোভা দেখার জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here