এলআইসি এজেন্টের আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তার প্রৌঢ়

0
212

সংবাদদাতা, বর্ধমান:- এলআইসি এজেন্টের আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় এক প্রৌঢ়কে গ্রেপ্তার করেছে রায়না থানার পুলিশ। ধৃতের নাম নিতাই অধিকারী। রায়না থানার নান্দাল গ্রামে তার বাড়ি। শুক্রবার ভোরে বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিনই ধৃতকে বর্ধমান আদালতে পেশ করা হলে ধৃতকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত বিচার বিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন সিজেএম।

পুলিশ জানিয়েছে, রায়না থানার ভীমপুরের বাসিন্দা সমীরণ পাল এলআইসির এজেন্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন। অভিযুক্ত নিতাই অধিকারী তার কাছে একটি পলিসি করান। এ বছরের মার্চ মাসে সেটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়। মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার দিন দশেক আগে পলিসি ও ব্যাংকের যাবতীয় নথিপত্র এলআইসি অফিসে জমা করেন সমীরণ। কিন্তু, কোনও কারণে পলিসির টাকা নিতাই অধিকারীর অ্যাকাউন্টে জমা পড়েনি। কি কারণে টাকা অ্যাকাউন্টে জমা পড়েনি তা জানতে নিতাইবাবুকে সঙ্গে নিয়ে বর্ধমানে এলআইসি অফিসে যান সমীরণ। অফিস থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সমস্যা মিটিয়ে অ্যাকাউন্টে টাকা জমা পড়ার বিষয়ে আশ্বাস দেওয়া হয়। অভিযোগ তা সত্বেও প্রায়ই সমীরণকে গালিগালাজ ও হুমকি দিতে শুরু করেন নিতাই। এরই মধ্যে গত বুধবার সন্ধ্যায় দুজনের দেখা হলে সমীরণের পথ আটকে নিতাই অধিকারী তাকে গালিগালাজ ও মারধর করেন। এমনকি তার বাইকটিও কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর বৃহস্পতিবার সকালে সমীরণের বাড়ি থেকে তার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। নিতাই অধিকারীর হুমকি ও মানসিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে তার ভাই আত্মঘাতী হয়েছে বলে অভিযোগে জানান সমীরণের দাদা। তিনি ঘটনার বিষয়ে রায়না থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই অভিযুক্ত নিতাই অধিকারীকে গ্রেফতার করে রায়না থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here