মানবিকতা আজও আছে – প্রমাণ করলেন পানাগড় শিল্পতালুকের শ্রমিকেরা

0
1451

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ মানবিকতা আজও আছে। বর্তমান সমাজে দিনের পর দিন এমন ভাবে আমরা নিজেদেরকে ব্যস্ততায় মুড়ে ফেলেছি যে “মানবিকতা” নামক শব্দটা ধীরে ধীরে আমাদের অভিধান থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে। তবে একথা একদমই অস্বীকার করা যাবে না যে আমাদের এই পৃথিবী আজও বহু মানুষ রয়েছেন যারা এই পৃথিবীতে বাঁচেন শুধুমাত্র অন্যের বিপদের ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য। কিন্তু এক সহকর্মী দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানার পরেই কারখানার বাকি সহকর্মীরা যেভাবে তার বিপদের দিনে পাশে দাঁড়ালেন তা আবারও প্রমাণ করলো আধুনিক বিশ্বের এই উদার দৌড়ে এখনও মানবিকতা নিঃশ্বেষ হয়ে যায়নি। ঘটনা পানাগড় শিল্পতালুকের এক কারখানার। ওই কারখানারই এক শ্রমিক রাজু ক্ষেত্রপাল। হঠাতই দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে বিছানায় পড়ে যান। যার ফলে বন্ধ হয়ে যায় আর্থিক যোগান। কারণ পরিবারের একমাত্র রোজগেরে হওয়ায় অসুস্থতার পর থেকেই কাজে যেতে পারায় বেতন বন্ধ হয়ে যায়। এরকম পরিস্থিতিতে পরিবারের সদস্যরা যখন অভুক্ত অবস্থায় এবং আর্থিক অপ্রতুলতার জেরে রাজু ক্ষেত্রপালের চিকিৎসা বন্ধ হয়ে যাওয়ার মুখে ঠিক তখনই তাদের পরিবারের এই অবস্থার কথা জানতে পারেন রাজুর সহকর্মীরা। যেই ভাবা সেই কাজ। রাজুর পরিবারের মুখে অন্ন তুলে দিতে এবং তার চিকিৎসা এবং দ্রুত সুস্থতা কামনা করে কারখানার সহকর্মীরা নিজেদের মধ্যেই তুলে ফেললেন ৫০ হাজার টাকা। আর টাকা জোগাড় হতেই দেরী না করে সেই সঞ্চিত টাকা কারখানার ভেতরেই রাজুর পরিবারের সদস্যের হাতে তুলে দিলেন তার সহকর্মীরা। আর অপ্রত্যাশিতভাবে এই আর্থিক সাহায্য পেয়ে হতবাক রাজুর পরিবার। কারণ, দিনের পর দিন তাদের এমনই অবস্থা ঠেকেছিল যে পরিবারের খাওয়া-দাওয়া এবং রাজুর কঠিন রোগের চিকিৎসার খরচ জোগাড় করতে হিমসিম খেতে হচ্ছিল তাদের। এরকম অবস্থায় তার সহকর্মীদের এহেন সাহায্যের ফলে ফের তার চিকিৎসা শুরু করা যাবে বলে জানালেন রাজুর পরিবারের সদস্যরা।