‘বান্ধবী’র চার লক্ষ টাকা আত্মসাৎ ও মারধরের অভিযোগে গ্রেপ্তার যুবক

0
299

সংবাদদাতা, বর্ধমানঃ- প্রেমিক প্রেমিকার ভালোবাসার সম্পর্কে অর্থের প্রবেশ মানেই সম্পর্কের অবনতি সেটাই আবার প্রমাণ হলো বর্ধমান শহরে। বর্ধমান শহরের ছোটনিল্পুর এলাকার বাসিন্দা রাগেশ্রী ঘোষালের সাথে ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন প্রণয় চক্রবর্তী ওরফে ঘন্টু।
সরকারি কর্মচারী রাগেশ্রী ঘোষাল আর্থিকভাবে স্বচ্ছল হওয়ায় , গতবছর দু’দফায় চার লক্ষ টাকা ধার নেয় প্রণয় চক্রবর্তী। প্রেমিকার কাছ থেকে টাকা ধার নেওয়ার সময় তা ঠিক সময়ে পরিশোধ করবেন বলে কথা দিয়েছিলেন প্রণয়। কিন্তু সময় বেশি অতিক্রান্ত হলও প্রণয় টাকা পরিশোধের কোন ইচ্ছাই প্রকাশ করেনি। ধার দেওয়া টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দুজনের সম্পর্কের অবনতি হয় । প্রণয় চক্রবর্তী প্রেমিকার কাছ থেকে টাকা নেওয়ার পর থেকে তাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করেন। বাধ্য হয়ে শনিবার রাত্রে টাকা চেয়ে রাগেশ্রী প্রণয়কে যোগাযোগ করলে, প্রণয় চক্রবর্তী তাঁকে তাঁর বাড়ীতে ডেকে পাঠান। শনিবার রাত্রে রাগেশ্রী প্রণয় চক্রবর্তীর বাড়িতে দেখা করতে গেলে , প্রথমে তাকে প্রচণ্ড মারধর করা হয়। তারপর ধারালো বস্তু দিয়ে তার মাথায় সজোরে আঘাত করা হয় বলে অভিযোগ রাগেশ্রীর। প্রনয়ের বাবা-মা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার করে রাগেশ্রীকে । মারধরের ঘটনার খবর পেয়ে বর্ধমান থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাগেশ্রীকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসার পর তিনি বর্ধমান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে বর্ধমান থানার পুলিশ প্রণয় চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎ , ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত ও শ্লীলতাহানীর ধারায় মামলা রুজু করে। বর্ধমান থানার পুলিশ রাত্রি বর্ধমান শহরের পার্কাস রোডে প্রণয় চক্রবর্তীর বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। রবিবার ধৃত প্রণয় চক্রবর্তীকে বর্ধমান আদালতে পেশ করা হলে, বিচারক তাকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠান । অন্যদিকে ধৃতের আইনজীবী হিমাদ্রি গঙ্গোপাধ্যায় জানান, ধৃত প্রণয় চক্রবর্তী সাথে ওই যুবতীর ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। কোন কারণবশত ওই যুবতী মিথ্যা মামলায় তাঁর মক্কেলকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here