আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে আসানসোলের রবীন্দ্র ভবনে পালিত হল পুলিশ দিবস

0
252

সন্তোষ মন্ডল, আসানসোলঃ– এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আসানসোল দুর্গাপুর কমিশনারেট পুলিশের কমিশনার সুকেশ কুমার জৈন, আসানসোলের মহানাগরিক জিতেন্দ্র তেওয়ারি, এডিডিএর চেয়ারম্যান তাপস বন্দোপাধ্যায়, জেলা শাসক পূর্ণেন্দু মাজি, পুরকমিশনার খুরশিদ আলি কাদরি ও পুলিশের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা। এদিনের অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার সুকেশ কুমার জৈন একটি ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে পুলিশ কমিশনারেটে পুলিশের বিভিন্ন সামাজিক কাজের গতি প্রকৃতি তুলে ধরেন। এছাড়া করোনা পরিস্থিতিতে পুলিশ কর্মীরা যেভাবে পশ্চিম বর্ধমানের সাধারন মানুষ সহ ভীন রাজ্যের কোটা থেকে আসা ছাত্র ছাত্রী ও পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে পুলিশ দাঁড়িয়েছে তার একটা ডিজিট্যাল উপস্থাপনা প্রকাশ করেন তিনি। এদিন কমিশনার সুকেশ কুমার জৈন বলেন, কোন ঘটনা ঘটলে সেখানে যতো তাড়াতাড়ি পুলিশ পৌঁছাতে পারেন তার ব্যবস্থা করা ও মানুষকে যতো বেশি সম্ভব সুযোগ সুবিধা দেওয়ার ব্যবস্থা করা যায়, সেটাই হবে প্রধান ও প্রাথমিকভাবে পুলিশের লক্ষ্য। এরই সঙ্গে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আসানসোলের মহানাগরিক জিতেন্দ্র কুমার তেওয়ারি, তাপস বন্দোপাধ্যায় ও জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজি। এদিন আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট এর পক্ষ থেকে কোভিড যোদ্ধাদের সম্মানিত করা হয়। এর বিশেষ কাজের জন্য ১০ জন পুলিশ কর্মীকে সম্মানিত করা হয়। পুরস্কার তুলে দেন কমিশনার সুকেশ কুমার জৈন, মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারি, এডি ডি এ চেয়ারম্যান তাপস বন্দোপাধ্যায়, জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজি, পুর কমিশনার খুরশিদ আলি কাদরি ও পুলিশের অন্যান্য আধিকারিকরা। উল্লেখযোগ্য ভাবে মাদক সেবন এবং পাচার সংক্রান্ত যেকোন রকম অভিযোগের জন্য আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট এর পক্ষ থেকে একটি ডেডিকেটেড হেল্পলাইন নাম্বার চালু করা হয়। সেই নাম্বারটি হল : ৯৬০৯২২১১০০। এছাড়া ওইদিন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন সিভিক ভলান্টিয়ার, ভিলেজ পুলিশ, আশা কর্মীরা অবসর কালে তিন লক্ষ টাকা পাবেন যা একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত বলে বিবেচিত হচ্ছে ওয়াকিবহাল মহলের কাছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here