পুলকার এর অনিয়ম ধরতে দুর্গাপুর পুলিশের অভিযান

0
1804

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- বৈধ কাগজপত্রহীন পুলকার ধরপাকড় শুরু করল দুর্গাপুর পুলিশ। আটক সমস্ত পুলকার গুলিতে অনিয়ম লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সেই সব পুলকার গুলীর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিতে চলেছে পুলিশ প্রশাসন। দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে প্রায় ১৫০০ পুলকার গাড়ি চলাচল করে বলে জানা গেছে। বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় সংস্থা ও স্কুলের নিজস্ব পুলকার গুলিতে নিয়ে তেমন সমস্যা না থাকলেও মূলত সমস্যা ব্যক্তি মালিকানাধীন পুলকার গুলির বিরুদ্ধে। ওই সব পুলকার গুলির বিরুদ্ধে কর ফাঁকি, বৈধ কাগজপত্র না থাকা, ফিটনেস সার্টিফিকেট না নেওয়া ও চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকার মতন একগুচ্ছ অভিযোগ রয়েছে। বেশ কিছু অভিভাবক অভিযোগ করেন যে ব্যক্তিগত মালিকানাধীন পুলকার গুলি অতিরিক্ত ছাত্র-ছাত্রী বহন করে নিয়ে যাওয়ার ফলে দৈনন্দিন দুর্ঘটনা ঘটছে। আজকে দুর্গাপুর পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলকার গাড়ি গুলি রাস্তায় দাঁড় করিয়ে তাদের কাগজপত্র পরীক্ষা করা শুরু করে। কিন্তু যেহেতু পুলকার গুলিতে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা গাড়িতে ছিল তাই তাদের কে সতর্ক করে দিয়ে গাড়ি গুলিকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

গাড়ী পরীক্ষারত এক পুলিশ আধিকারিক জানান রাজস্ব বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে এই অভিযান নয় পড়ুয়াদের নিরাপত্তা রক্ষা করাটাই পুলিশের প্রধান লক্ষ্য। তাই জন্যই পুলকার গুলির বৈধ কাগজপত্র ও গাড়ির ফিটনেস বজায় রাখা অনিবার্য। কিন্তু পুলিশি এই অভিযানের বিরুদ্ধে এক পুলকার মালিক জানান, তারা পড়ুয়াদের কাছ থেকে ৫০০ থেকে ৮০০ টাকার ভেতরে মাসিক ভাড়া নেন স্কুলে দিয়ে আসা ও নিয়ে আসার জন্য। এই অল্প টাকাতে বৈধ কাগজপত্র বানিয়ে গাড়ি চালাতে হলে ভাড়া আরো বৃদ্ধি করতে হবে সে ক্ষেত্রে অভিভাবকরা সেই ভাড়া দিতে চান না। সেই জন্যই তারা এই ব্যবসায় এখনো লাভের মুখ দেখতে পাচ্ছেন না। যদি দুর্গাপুর পুলিশ তাদের ওপর এই ভাবে হেনস্থা করেন তাহলে আগামী দিনে তারা আন্দোলনে নামবে বলেও হুমকি দেন। অন্যদিকে দুর্গাপুরের সাধারণ ইস্পাত নগরীর বাসিন্দারা পুলিশের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে। তারা আরো জানান পুলকার মালিকেরা অল্প পয়সায় ছাত্র-ছাত্রীদের কে বহন করার বাহানা দিয়ে তাদের অচল গাড়ি গুলিকে ব্যবহার করে সাধারন ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনের সাথে ছিনিমিনি খেলছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here