স্কুলের ভিতরেই দুই ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে

0
408

সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- স্কুলের ভিতরেই দুই ছাত্রী কে কু প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ উঠল এক পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এদিন হাড়োয়া এলাকার মোহনপুর অঞ্চলের মোহনপুর এম সিএইচ স্কুলে ছাত্র-যুব অনুষ্ঠান চলছিল। এদিন ই ছিল এই অনুষ্ঠান সূচীর শেষ দিন। সন্ধ্যের দিকে এই অনুষ্ঠানটি পরিবেশিত হচ্ছিল। অনুষ্ঠানে হাড়োয়া থানার গোপালপুর ক্যাম্পের এ এস আই জাহাঙ্গীর হোসেন গাজী স্পেশ্যাল ডিউটি করছিলেন। অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, অনুষ্ঠান চলাকালীন সন্ধ্যা ৬ টা নাগাদ ওই স্কুলের ই একাদশ শ্রেনীর দুই ছাত্রী কে স্কুলের ক্লাশরুমের ভিতরে ঢুকে কুপ্রস্তাব দেয় জাহাঙ্গীর বাবু। এমনকি ওই দুই ছাত্রী কে অশ্লালীন ভাষায় গালিগালাজও করেন জাহাঙ্গীর বাবু। স্কুলের দুই ছাত্রী এই ঘটনার প্রতিবাদ করায় পরিস্থিতি আরো জোড়ালো হয়ে ওঠে। অন্যদিকে উপস্থিতি ছাত্রীরা বলেন, অনুষ্ঠানের শেষ দিকে অভিযুক্ত পুলিশ কর্মী ওই দুই ছাত্রীর কাছে জল খেতে চান। জল এনে দিলে সেই সুযোগে দুই ছাত্রী কে স্কুলের দোতালায় ডেকে নিয়ে যায় ওই পুলিশ কর্মী। ক্লাশ রুমের ভেতরেই জাহাঙ্গীর বাবু দুই ছাত্রীর সাথে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। তৎক্ষনাৎ ওই দুই ছাত্রী নিজেদের বাঁচাতে জোরে চিৎকার করতে থাকে। সেই সময় নিজেকে বাঁচাতে স্কুলের একটি অফিস রুমে গা ঢাকা দেয় ঔ পুলিশ কর্মী। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি জাহাঙ্গীর বাবুর।

এরপর গ্রামবাসীরা ওই স্কুলে পৌঁছায়। গ্রামবাসীরা জাহাঙ্গীর বাবু কে স্কুল থেকে বের করে ব্যাপক মারধর করে। এমনকি পুলিশের গাড়িতে আগুনও ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। এরপরে হাড়োয়া থানার পুলিশ ও কমব্যাট বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। গনপিটুনির অভিযোগের ভিত্তিতে কয়েকজন গ্রামবাসী কে পুলিশ ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে। এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। অন্যদিকে, অভিযুক্ত পুলিশ কর্মী কে আটক করে জোরদার জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here