আলুর দাম নেই, ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে বাঁকুড়া জেলার আলু চাষীরা

0
283

সঞ্জীব মল্লিক, বাঁকুড়াঃ- “বর্তমান রাজ্য সরকার সর্বদাই কৃষকদের পাশে থেকে কৃষকদের জন্য কাজ করেছে।” মুখ্যমন্ত্রী মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গেলে বারবার একথাই বলেন । কিন্তু বর্তমানে রাজ্যের কৃষকরাই অবহেলিত। ফসলের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না তারা। ফলে ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে তাদের । এমনকি অনেক কৃষক ঋণ শোধ করতে না পেরে আত্মহত্যা পর্যন্ত করছেন। কিন্তু তার পরেও কৃষকদের আর্থিক সমস্যার সমাধানে কোনরকম হেলদোল নেই বর্তমান রাজ্য সরকারের ।

এই মুহূর্তে বাঁকুড়া জেলার কৃষকদের সবথেকে বড় সমস্যা আলুর দাম না পাওয়া । এবছর তারা সাড়ে চার হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা দিয়ে আলু বীজ কিনে আলু চাষ করেছেন। অনেকে আবার মহাজনদের কাছে ধারে টকা নিয়ে বীজ কিনে আলু চাষ করেছেন । সব মিলিয়ে বিঘা প্রতি খরচ পঁচিশ হাজার টাকা । কিন্তু বর্তমানে ৫০ কেজির এক বস্তা আলু বিক্রি হচ্ছে ২৮০ টাকা থেকে ২৯০ টাকায়। ফলে যে পরিমাণ টাকা বিঘাপ্রতি আলু জমিতে খরচ হয়েছে তা উঠছে না । স্বাভাবিকভাবেই ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে বাঁকুড়া জেলার আলুচাষীদের । আগামী দিনে মহাজনদের ঋণ তারা কিভাবে শোধ করবে তাই ভেবে রাতের ঘুম ছুটেছে চাষীদের ।

বাঁকুড়া জেলার কোতুলপুরের সুজিত পন্ডিত নামে এক আলুচাষী বলেন, “এবছর আলুর যা দাম তাতে আসল টাকাই উঠছে না। এমতাবস্থায় গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা ছাড়া আর কোন উপায় নেই আমাদের ।” বঙ্কিম পান নামে জেলার অপর এক আলুচাষী বলেন, “আলু চাষে ২৫০০০ টাকা খরচ কিন্তু সেই টাকা উঠছে না। ফলে ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে আমাদের ।”

এই নিয়ে রাজ্য সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন বিজেপি । কোতুলপুর বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী হরকালী পতিহার বলেন, “চাষীরা আলুর দাম পাচ্ছে না, এটা সম্পূর্ণ রাজ্য সরকারের ব্যর্থতা । এরাজ্যে যখন ৪০০০ থেকে ৫০০০ টাকা দিয়ে আলু বীজ কিনতে হচ্ছে তখন বিজেপি শাসিত রাজ্যে এক হাজার পনেরশো টাকার বেশি আলু বীজের দাম ছিল না ।” তবে বিজেপি ক্ষমতায় এলে কৃষকদের সমস্ত সমস্যার সমাধান হবে বলে তিনি দাবি করেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here