কারখানার বর্জ্য পুকুরের বাঁধ ভেঙে প্লাবিত রেল লাইন, বন্ধ রেল পরিষেবা

0
1256

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ অ্যালুমিনিয়াম পাউডার কারখানার দূষিত জল জমা পুকুরের পাড় ভেঙ্গে বিপত্তি। দূষিত জলের তোড়ে ডুবল নিকটবর্তী রেল লাইন। ঘটনা পুরুলিয়া থাকা পশ্চিমবঙ্গ ও ঝাড়খন্ড সীমান্ত সংলগ্ন মুরি জংশনের। জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর নাগাদ আচমকায় ওই পুকুরের পাড় ভেঙে কারখানার সমস্ত জমা দূষিত জল ও কাদামাটি রেললাইনের ওপরে চলে আসে। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি ওই লাইনের মুরি থেকে টাটাগামী সমস্ত ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই এলাকায় বহুদিন ধরেই অ্যালুমিনিয়াম পাউডার কারখানা রয়েছে। কারখানা কর্তৃপক্ষ কারখানার বর্জ্য পদার্থ মিশ্রিত বিষাক্ত জল ও বর্জ্য নিষ্কাশনের জন্য কারখানা ও রেললাইনের মধ্যবর্তী ফাঁকা জায়গায় একটি পুকুর খনন করেছিলেন। সেখানেই দিনের পর দিন জমা হত কারখানার বর্জ্য ও দূষিত জল। এলাকাবাসীদের বয়ান থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর ১টা নাগাদ আচমকায় ওই পুকুরের পাড় ভেঙে প্লাবিত হয়ে যায় পাশে থাকা রেল লাইন। কারখানার দূষিত জল ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। সঙ্গে সঙ্গে নিকটবর্তী মুরি জংশনে খবর গেলে দুর্ঘটনার আশঙ্কায় বন্ধ করে দেওয়া হয় ট্রেন চলাচল। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনও ওই লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। উল্লেখ্যে আজ থেকে ঠিক এক-দেড় বছর আগে ওই একই কারখানার দূষিত রাসায়নিক মিশ্রিত বিষাক্ত জল সূবর্ণরেখা নদীতে কোনওভাবে মিশে গিয়ে ব্যাপক জলদূষণের সৃষ্টি হয়েছিল। দূষিত জলে নদীর প্রচুর মাছ যেমন মারা গিয়েছিল, তেমনি ওই জলে বহু এলাকাবাসীর চর্মরোগও দেখা দিয়েছিল। মঙ্গলবার ফের একই কারখানার বিষাক্ত জলের জেরে এই ঘটনা। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য, যে পুকুরের পাড় ভেঙে এদিন রেললাইন প্লাবিত হয়েছে সেই পুকুরটি দেখাশোনার জন্য কয়েকজন কর্মী নিযুক্ত করেছিল ওই কারখানা কর্তৃপক্ষ, এদিন দুর্ঘটনার সময়ও সেখানে তাদের পাহারা দেওয়ার কথা। অথচ এই ঘটনার পর থেকে তাদের কারোরই কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি। ফলে জলের তোড়ে তারা নিখোঁজ হয়েছেন নাকি ঘটনার পর এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন সেবিষয়ে ধোঁয়াশায় এলাকাবাসী।