ছাত্রীর পর শিক্ষিকাঃ যৌন হেনস্থার দায়ে অভিযুক্ত কাটোয়া’র অধ্যাপক

0
520

সংবাদদাতা, কাটোয়াঃ- পরীক্ষায় নম্বর বিক্রী’র পর, কাটোয়া কলেজের প্রানীবিদ্যা বিভাগের প্রধানের বিরুদ্ধে এবার যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনলেন এক মহিলা অধ্যাপক। শুক্রবার এই নিয়ে তীব্র চাঞ্চল্য কাটোয়ায়।
গত ৮ সেপ্টেম্বর কলেজের প্রানীবিদ্যা’র বিভাগীয় প্রধান নির্ভীক ব্যানারজীর বিরুদ্ধে খাতা পিছু ৫০০ টাকায় নম্বর বাড়িয়ে দেওয়ার প্রস্তাবের অভিযোগ দায়ের হয়। জমা পড়ে কিছু অডিও ক্লিপ। পাশাপাশি, এক ছাত্রী নির্ভীকের বিরুদ্ধে কুপ্রস্তাব দেওয়া ও তাকে ক্রমাগত অশ্লীল ভিডিও পাঠানোর অভিযোগ করেন। কলেজের অধ্যক্ষ নির্মলেন্দু সরকারের কাছে ওই ছাত্রী অভিযোগ দায়ের করেন। এই নিয়ে তদন্ত শুরু হতে না হতেই, শুক্রবার কলেজের প্রানীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপিকা চন্দ্রানী দাস আলাদা একটি অভিযোগ জমা করেন কলেজের অধ্যক্ষের কাছে। তাতে তিনি দাবি করেন, নির্ভীক যখন তখন তাকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন। তার বক্তব্য, “কলেজে প্রথমে আসার পর উনি আমাকে প্রোপোজ করেন। আমি তা খারিজ করে দিই। তারপর থেকেই নানান ছুতো’য় উনি আমাকে যৌন হেনস্থা করতে থাকেন।” তার দাবি, “কখনো কলেজের ল্যাবটেরিতে, কখনো ফাঁকা টিচার্সরুমে উনি অপ্রয়োজনে বার বার আমাকে ছোঁওয়ার চেষ্টা করেন। আমি, আমার বিরক্তির কথা বুঝিয়ে দিলেও উনি শোধারাচ্ছিলেন না। তাই, অভিযোগ দায়ের করলাম।”
গোটা বিষয়টিতে নির্ভীক সব অভিযোগ ঝেড়ে ফেলে বলেন, “চাকরি ক্ষেত্রে ওনার কিছু অন্যায় আবদার মানতে চাইনি বলে উনি এখন এসব আষাঢ়ে গল্প ফেঁদে আমার গায়ে কালি দিতে চাইছেন।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here