দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে করোনা নমুনা পরীক্ষা মিলবে হাতেনাতে

0
501

সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- গোটা দেশ তথা রাজ্যে এখন আতঙ্কের আরেক নাম করোনা ভাইরাস। এখনও পর্যন্ত এই মহামারী রোগে আক্রান্ত হয়ে বহু মানুষ মারা গিয়েছেন। দেশ তথা রাজ্য জুড়ে অনেকগুলি কোভিড হাসপাতাল আছে যেখানে করোনার চিকিৎসা করা হচ্ছে। এই চিকিৎসায় বহু মানুষ এই রোগ থেকে মুক্তি পেয়েছেন। আবার অনেক মানুষ করোনার সাথে সাথে লড়তে লড়তে নিজের জীবন দিয়েছেন। তাই এবার করোনার সাথে মোকাবিলার জন্য দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালেই সাথে সাথে হাতেনাতেই মিলবে করোনা নমুনা পরীক্ষা। রোগীর করোনা পরীক্ষার মাত্র পনেরো থেকে কুড়ি মিনিটের মধ্যেই মিলবে নমুনা। এতদিন রোগী করোনা আক্রান্ত কিনা তা জানতে মলানদীঘির সনোকা বিশেষ করোনা হাসপাতাল থেকে রিপোর্ট আসতে প্রায় দু সপ্তাহের মতো সময় লাগতো। কিন্তু এবার নতুন পদ্ধতিতে পরীক্ষার মাত্র পনেরো থেকে কুড়ি মিনিটের মধ্যেই মিলবে রিপোর্ট। এতদিন এই মারণ ভাইরাসের থাবা গ্রাস করেছিল রাজ্যের সমস্ত সরকারী হাসপাতালগুলিকে। কারন কোনো রোগী যদি সামান্য জ্বর বা প্রাথমিক উপসর্গ নিয়ে সরকারী হাসপাতালে আসত তাহলে হাসপাতালের চিকিৎসকেরা বুঝতে পারতেন না এটা করোনা সংক্রমন না অন্য কোনো রোগ। ফলে বিনা টেস্টেই রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি নিতে হত। আর এতে বাড়ত করোনা সংক্রমনের আশংকা।
এদিন দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার ডাঃ ইন্দ্রজিৎ মাজি বলেন, “এই নতুন পদ্ধতিতে করোনা পরীক্ষায় অনেক সুবিধা পাওয়া যাবে। যদি কোনো রোগীর রিপোর্ট পজিটিভ আসে তাহলে তাকে হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে পাঠানো হবে, অর্থাৎ ওয়ার্ড বন্ধ করে দেওয়া অথবা অন্য ওয়ার্ডের সাথে কোনো ওয়ার্ডকে সংযুক্ত করে দেওয়ার ঝুঁকি থাকছে না, ফলে সাধারণ মানুষ চিকিৎসা পরিষেবা ঠিকঠাক পাবে”। তিনি এও বলেন, এতদিন একজন রোগী করোনা পজিটিভ না নেগেটিভ তার জন্য বিশেষ কোভিড হাসপাতালের ওপর নির্ভর করে বসে থাকতে হত। যে রিপোর্ট আসতে সপ্তাহখানেক অথবা তারও কিছু বেশী সময় লেগে যেত, যার ফলে ওই হাসপাতালের ভর্তি থাকা রোগী, চিকিৎসকেরা নার্স সবার মধ্যে সংক্রমনের একটা আশংকা রয়েই যেত। নতুন এই পদ্ধতিতে রোগী সংক্রমন নিয়ে হাসপাতালে আসা মাত্রই মাত্র পনেরো থেকে কুড়ি মিনিটের মধ্যেই জানা যাবে রোগীর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ না নেগেটিভ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here