কেন কৃষ্ণ এর বিগ্রহের পাশে রাধারাণী থাকেন- ভালোবাসার সেই শাশ্বত উচ্চারণের কথা জানুন

0
3254

সঙ্গীতা চৌধুরী, বহরমপুরঃ- আজ ভালোবাসার দিনে আমি চিরায়ত এক ভালোবাসার কথা বলবো।যা আমি নিজের সামান্য জ্ঞানের দ্বারা অনুভব করেছি। কোনো ভুল ত্রুটি হলে অবশ্যই সংশোধন করে দেবেন।রাধা ও কৃষ্ণের প্রেম সম্পর্কে নানা রকম কুৎসা রটিয়ে থাকেন শাস্ত্র না জানা মানুষ জন। তাই আজকের দিনে আমি বলবো রাধা -কৃষ্ণের তত্ত্ব সম্পর্কে কিছু কথা। জেনে নিন-১। রাধা কৃষ্ণের যে মিলন তা আসলে সীমার সঙ্গে অসীমের মিলন। আত্মা র সঙ্গে পরমাত্মা র মিলন। এই মিলন ইন্দ্রিয় জনিত মিলন নয়। এই মিলন দেহজ কামনার মিলন নয়। ২। রাধা হলেন ভক্ত শ্রেষ্ঠ। একজন ভক্ত ভগবান কে পেতে গেলে ঠিক কতখানি ত্যাগ ও কৃচ্ছসাধন করবেন তাই আসলে রাধারাণী দেখিয়েছিলেন। ভক্ত কে ভগবান কে পেতে গেলে নিজেকে সম্পূর্ণ রূপে কায়মনোবাক্যে সমর্পন করতে হয় এই রাধা তত্ত্ব এর মূল।৩। ভক্তের ভালোবাসার কাছে স্বয়ং ভগবান ছোট হয়ে যান। তাই কৃষ্ণ কে পেতে গেলে আগে রাধারাণীর কৃপা লাভ করতে হবে। তাই কৃষ্ণের নাম উচ্চারণ এর আগে রাধারাণীর নাম উচ্চারণ করলে আপনার মনোবাসনা খুব শীঘ্রই পূর্ণ হবে। কারণ গীতাতে শ্রীকৃষ্ণ বলেছেন শুদ্ধ ভক্তের কাছে তিনি স্বয়ং আত্মবিক্রয় করে থাকেন। তাই বৈষ্ণব ভক্ত গণের কৃপা লাভের মধ্য দিয়েই কৃষ্ণ প্রাপ্তি সম্ভব।৪। রাধারাণী হলেন সাক্ষাৎ প্রেমের মূর্ত বিগ্রহ। ভক্তের অন্তর প্রেম এ বিগলিত না হলে শুধু জ্ঞান এর মাধ্যমে কৃষ্ণ প্রাপ্তি হবে না।তাই রাধা রাণী কৃপা করে যদি আপনাকে প্রেম ভক্তি দান করেন তবেই আপনার পক্ষে কৃষ্ণ লাভ সম্ভব। ৫। রাধা হলেন ভক্ত কৃষ্ণ স্বয়ং ভগবান। কিন্তু ভক্ত ব্যতিরেক ঈশ্বর সম্পূর্ণ নন। ভক্তের ভক্তিতেই তিনি ভগবান‌।রাধা কৃষ্ণের বিগ্রহ আমাদের সেই চিরাচরিত সত্যের কথাই বলে।তাই রাধারাণী আর কৃষ্ণ এর সম্পর্কে কুৎসা রটনা করার আগে শাস্ত্র পড়ুন। জানুন তাঁকে। তারপর বলবেন। মনে রাখবেন তিনি অনন্ত শক্তির আধার আর আমরা সীমিত শক্তি। এই সীমিত শক্তি যখন সেই অনন্তে মিলে যাবে তখন ই ভালোবাসার সেই বৃত্ত টি সম্পূর্ণ হবে। ভক্ত আর ভগবানের -আত্মা আর পরমাত্মার সেই ভালোবাসাই- চিরন্তন। সেই প্রেম ই ধ্রুব সত্য।তাই সেই প্রেমকে সম্মান করুন ও অনুভব করার চেষ্টা করুন। সবকিছু হারিয়ে ফেলার পর দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার মুহূর্ত আমরা কিন্তু সেই বিপদভঞ্জনের ই শরণ নিই। কারণ আমরাও অন্তর থেকে জানি সব দিক চলে গেলেও তিনি আছেন। আমাদের শেষ আশ্রয়। তাই ভালোবাসার এই দিনে তাঁকেও সাজান নতুন পোশাকে, নিজে হাতে রান্না করে ভোগ নিবেদন করুন আর মুখে বলুন -“হরে কৃষ্ণ”,”রাধে রাধে” দেখবেন আপনার অন্তরে আপনি শান্তি অনুভব করছেন। আর কিছু না করতে পারলেও গীতার ভক্তিযোগ অধ্যায়টি আজ পড়ুন আপনার হৃদয়ের যে পার্থক্য ঘটবে তা আপনি নিজেই অনুভব করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here