দেদার বালি লুঠ বাঁকুড়ায়ঃ অভিযোগ পেয়ে দ্বারকেশ্বর ঘাটে থানা প্রশাসনের

0
1067

নিজস্ব সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুরঃ– বেআইনি বালি পাচারের অভিযোগ পাওয়ার পর এবার নড়ে চড়ে বসল বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন আর তার ফল ও মিলল হাতে নাতে। বাজেয়াপ্ত হল ৮ টি বালি বোঝাই লরি।

বিষ্ণুপুর মহকুমার ইন্দাস, পাত্রসায়র, কোতুলপুর থানা এলাকা বেআইনি বালি পাচারের স্বর্গরাজ্য হয়ে উঠেছে বেশ কিছুদিন। এই নিয়ে গত ৪ জুন জেলা শাসকের কাছে একটি অভিযোগ জমা দেয় দিল্লির অল ইন্ডিয়া অ্যান্টি করাপশন অর্গানাইজেশন। গত সন্ধ্যায় ফের ওই সংস্থার আধিকারিক সুব্রত মল্লিক জেলা প্রশাসনকে জানান যে কোতুলপুর ও ইন্দাস এর মাঝামাঝি কুচবেড়িয়া গ্রামের কাছে দ্বারকেশ্বর নদী ঘাটে পরপর বেশ কিছু লরিতে বেআইনি ভাবে বালি বোঝাই করা হচ্ছে। খবর পেয়ে রাএি সাড়ে দশটা নাগাদ সেখানে কোতুলপুর এর বি.ডি.ও কৃষ্ণেন্দু ঘোষের এর নেতৃত্বে পুলিশ ও ভূমি দপ্তর এর আধিকারিকরা কুচবেড়িয়া ঘাটে হানা দিয়ে ৮ টি বালি বোঝাই লরি বাজেয়াপ্ত করেন। বি.ডি.ও জানান “বালি খাদান এর যন্ত্রপাতি ও মজুদ রাখা বালি নজরদারির জন্য সেখানে সিভিক পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। জায়গাটি ইন্দাস ও কোতুলপুর এর মাঝামাঝি হওয়ায় কোন থানায় এফ.আই.আর হবে তা নির্ধারণের জন্য ২ ব্লকের আধিকারিকরা সোমবার একটি যৌথ পরিদর্শন করবেন বলে জানা গেছে। কুচবেড়িয়ার এক পাশে নদীর ওপারে ইন্দাস এর কুঞ্জপুর আর এ পারের কোতুলপুরের আমদহি গ্রাম। গত রাত্রে বালিঘাটে হানার পর সুব্রত মল্লিক বলেন “অজস্র ঘাটে এই ভাবে বালি চলছে বাকুড়ায়। প্রশাসনকে জানিয়েছি। এরপর জমা দেব ঘাট পিছু লরি আর বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মাসোহারা’র তথ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here