ঘুমন্ত অবস্থায় দুস্কৃতিদের ধারালো অস্ত্রের কোপ গুরুতর জখম দম্পতি

0
819

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ রাতের অন্ধকারে ঘুমন্ত অবস্থায় এক দম্পতিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপালো দুষ্কৃতিরা। ঘটনা দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিং থানার ১নং দিঘির পাড় অঞ্চলের মধ্য কড়াকাটি গ্রামের। আশঙ্কাজনক দম্পতির নাম রবিন মন্ডল (৪০) ও স্ত্রী প্রতিমা মন্ডল (৩৫)। জানা গেছে, বুধবার রাতে অত্যাধিক গরমের কারণে ঘরের বাইরে বারান্দায় ঘুমোচ্ছিলেন তারা। আচমকা এক বা একাধিক দুষ্কৃতি বাড়িতে হানা দিয়ে অন্ধকারের মধ্যেই ওই দম্পতির উপর চড়াও হয়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে দুজনকেই এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে বলে অভিযোগ। তাদের চিৎকারে আশাপেশের লোকজন বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এলে দুষ্কৃতিরা অন্ধকারে গা ঢাকা দেয়। রক্তাক্ত ও আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের দুজনকে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে। বর্তমানে রবিন মন্ডল নামে গুরুতর আহত অবস্থায় ক্যানিং হাসপাতালে ব ভর্তি থাকলেও তার স্ত্রী প্রতিমা মন্ডলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়েছে। আহত রবিন মণ্ডলের বয়ান থেকে জানা গেছে, ঘুমের মধ্যে থাকায় এবং অন্ধকার থাকায় তারা হামলাকারীদের চিনতে পারেননি। ক্যানিং থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আহতের পরিবার। অন্যদিকে লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় এক বিজেপি কর্মীকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুস্কৃতিদের বিরুদ্ধে। আহত বিজেপি কর্মীর নাম সমতুল সরদার। ঘটনা ক্যানিং থানার নিকারীঘাটা অঞ্চলের হিঞ্চাখালী খাসকুমড়ো খালী গ্রামের। অভিযোগ, বুধবার জমিতে চাষ করাকালীন আচমকায় কয়েকজন দুস্কৃতি তার উপর হামলা করে। করায় , সেই পুষে রাখে স্থানীয় কয়েকজন তৃণমূল কর্মী । আর গতকাল মাঠে ট্রাকটর চষা নিয়ে কয়েকজন তৃণমূল কর্মীর সাথে বচসা বাঁধে সমতুলে। বাঁশ, রড় ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। ক্যানিং থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে পরিবারের তরফে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here