নাবালিকাকে পাশে বসিয়ে, সরকারি বাসে কন্ট্রাক্টরের হস্তমৈথুনঃ শাস্তি চেয়ে ধর্নায় সব দল

0
2152

নিজস্ব সংবাদদাতা , দুর্গাপুরঃ- নাবালিকাকে পাশে বসিয়ে বাস কন্ট্রাক্টরের ‘অশ্লীল’ কুকর্ম নিয়ে বিস্তর চাঞ্চল্য দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগমে।

সোমবার দলমত নির্বিশেষে নিগমের কর্মচারীরা সংস্থার দুর্গাপুর স্থিত মুখ্য প্রশাসনিক ভবনে বিক্ষোভ ধর্নায় সামিল হচ্ছেন। এই নিয়ে সোস্থার আমলা মহলেও চাপা উত্তেজনা । কারণ যে বেসরকারি ফ্র্যাঞ্চাইজি কোম্পানির কন্ট্রাক্টর কুকর্মের দায়ে অভিযুক্ত, সেটি আসানসোলের এক নামী তৃণমূল কংগ্রেস নেতার সুপারিশে নিয়ম বহির্ভূতভাবে নিয়োগ করেছে নিগম।

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার। আসানসোল মালদা রুটের বাস নম্বর (WB39A-0896) টিতে পানাগড় থেকে কিশোরী কন্যাকে নিয়ে ওঠেন এক মহিলর। বাসটি ছিল ভিড়ে ঠাসা। কন্ট্রাক্টর জনার্দন দাস নাবালিকাকে “দয়া” করে নিজের পাশে বসান। সিউড়ি অভিমুখে চলার পথে আচমকাই জনার্দন হস্তমৈথুন শুরু করে দেন। এরপর হাতে করে জানলা দিয়ে ‘আবর্জনা’ বাইরে ফেলতে গেলে তা ছিটকে লাগে কিশোরীর গায়ে। আঁতকে ওঠে কিশোরী । শুরু হয় হুলুস্থূলুস কান্ড। বাসটি সিউড়ি ডিপোয় দাঁড়ালে কিশোরী ও তার মা ডিপো’য় নালিশ জানান কন্ট্রাক্টরের নামে। ” দুটি অসহায় মেয়েকে কার্যতঃ ডিপো থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। কারণ বাসটি যে ফ্রাঞ্চাইজি সংস্থা চালায় তার মালিক সুজন দত্ত’র মাথার ওপর আসানসোলের বিধায়ক তাপস ব্যানার্জি হাত আছে ,” বললেন দক্ষিণবঙ্গ পরিবহন নিগমের শ্রমিক সংগঠনের এক নেতা।

শনিবার, পরিস্থিতি বুঝে সিউড়ি ডিপো’র পক্ষ থেকে সিউড়ি থানায় অভিযোগ নথিভুক্ত করতে গেলে তা থামিয়ে দেওয়া হয় প্রভাবশালী ফ্রাঞ্চাইজি’র পক্ষ থেকে। নিগমের ডিভিশনাল ম্যানেজার দীপ্তিমান সিনহা বলেন “একটি ঘটনার কথা শুনেছি। বিষয়টি তদন্ত করা হবে”

এদিকে সোমবারই সংশ্লিষ্ট বাসটি’র সিসিটিভি ফুটেজ ডাউনলোড করে তা যাচাই করতে হবে। পাশাপাশি সিটু, ইনটাক, বিএমএস এবং আই.এন.টি.টি.ইউ.সি একজোট হয়ে কন্টাকটারের কুকর্মের জেরে নিয়ম বহির্ভূত ভাবে কেন আসানসোলের ওই ফ্র্যাঞ্চাইজিটিকে নিয়োগ হল, তার তদন্ত ও চাইবে সোমবারই। নিগমের কর্মীদের একাংশ বলেন ” একজন কন্ট্রাক্টর চলন্ত বাসে যা করলো , রাস্তাঘাটে আমরা মুখ দেখাতে পারছি না। আর এসবের মূল মূল্যে রাজনৈতিক মদতপুষ্ট ঠিকাদার তোষনের কুফল।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here