মিড-ডে-মিলে খাদ্যদ্রব্য চুরির অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে রুমে আটকঃ বিক্ষোভ অভিভাবকদের বাঁকুড়ায়

0
346

সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- করোনাময় পরিস্থিতিতেও ক্লান্তি ভুলে অত্যন্ত প্রশংসার সঙ্গে কাজ করে চলেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কঠিন পরিস্থিতিকে সাথে নিয়ে রাজ্যের মানুষকে নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। আর এমতাবস্থায় স্কুল বন্ধ থাকায় স্কুলের পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়িয়েছে খোদ রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের তরফে পড়ুয়াদের দেওয়া হচ্ছে খাদ্য সামগ্রী। এবার সেখানেই ধরা পরল মারাত্বক দুর্নীতি। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাল ডাল আলু কম দেওয়ার অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে স্কুলের একটি রুমে আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখালেন পড়ুয়াদের অভিভাবকরা। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুর থানার মরার পঞ্চায়েতের যমুনা বাঁধ কলোনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। অভিভাবকদের অভিযোগ, ‘যেখানে দু কেজি চাল দু কেজি আলু আড়াইশো মুসুরির ডাল দেওয়ার কথা কিন্তু দেখা যাচ্ছে তাদেরকে দেওয়া হয়েছে দেড় কেজি চাল আবার কাউকে এক কেজি সাতশ চাল, একশ সত্তর গ্রাম ডাল, দেড় কেজি আলু। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ এবং এস আই অফ স্কুল ঈশিতা ব্যানার্জি। তারা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে পুনরায় অভিভাবকদের সঠিক পরিমাণে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়। এক অভিভাবক বলেন, ‘আমরা চাল ডাল আলু বাড়ি নিয়ে যাই কিন্তু আমাদের সন্দেহ হওয়ায় ওজন করে দেখি সবকিছুই পরিমাণে কম রয়েছে। আমরা এই শিক্ষকের কঠিন শাস্তি চাই। ‘এই ধরনের শিক্ষক চান না বলেও জানান তাঁরা। অভিযুক্ত শিক্ষক অবশ্য ঘটনার দায় স্বীকার করে নিয়েছেন। তবে সংবাদ প্রতিনিধিদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘গোষ্ঠীর মহিলারা ওজনে কম দিয়েছে । আমি চেয়েছিলাম গ্রামবাসীদের সঙ্গ বিষয়টা মিটিয়ে নেব। ‘তবে আবার এ বিষয়ে গোষ্ঠীর মহিলাদের জিজ্ঞাসা করা হলে গোষ্ঠীর এক মহিলা বলেন, ‘প্রধান শিক্ষক আমাদেরকে ওজনে কম দিতে বলেছিলেন তাই আমরা ওজনে কম দিয়েছি। এখানে আমাদের কোন দোষ নেই।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here