বেনাচিতিতে দেহ ব্যবসা, বাধা পেয়ে গুলি চালানোর অভিযোগ পার্লার মালকিনের স্বামীর বিরুদ্ধে

0
11025

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- গোটা শিল্পাঞ্চল শহর যখন বসন্ত উৎসবে মাতোয়ারা, ঠিক তখনই দুর্গাপুরের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের শ্রীনগরপল্লী এলাকার একটি বাড়িতে দেহ ব্যবসা চালানোর অভিযোগে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন এলাকাবাসীর। বাধা পেয়ে গুলি চালানোর অভিযোগ পার্লার মালকিনের স্বামীর বিরুদ্ধে। জানা গেছে গতকাল সন্ধ্যেয় দুর্গাপুরের ২০ নং ওয়ার্ডে শ্রীনগরপল্লী এলাকায় একটি বাড়ীতে দেহ ব্যাবসা চালানোর অভিযোগে বিক্ষোভ দেখায় এলাকাবাসীরা। ওই বাড়ীর পাশেই তৃণমূলের নাগরিক কমিটির কার্যালয়। ওই ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা সভাপতি মৌসুমী সরকার জানান যে দীর্ঘদিন ধরেই ওই বাড়ীতে বহিরাগত বিভিন্ন ছেলে ও মেয়ের আনাগোনা। দোলের আগের রাত থেকেই প্রায় ১০, ১২ জন বহিরাগত মহিলা ওই বাড়ীতে ছিল। বাড়ীতেই মধুচক্রের ব্যাবসা ফেঁদে বসে ওই পার্লার মালকিন পিয়ালী দে ও তার স্বামী রতন দে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ওই বাড়ীতে বসবাসকারী মহিলার সিটি সেন্টারের অম্বুজায় একটি বিউটি পার্লার ছিল। গত জানুয়ারী মাসে পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ একটি অভিযান চালায় অম্বুজা এলাকায়। তারপর থেকেই একাধিক পার্লার বন্ধ হয়ে যায়। তারপরেই এই দেহব্যবসা কারবারিরা তাদের ব্যবসা গুটিয়ে বিভিন্ন এলাকায় বসতবাড়ি ভাড়া নিয়ে চালাচ্ছেন তাদের এই দেহ ব্যবসার মায়াজাল এমনই অভিযোগ শ্রীনগরপল্লী এলাকার বাসিন্দাদের। পিয়ালী দে তার নিজের বাপের বাড়িতেই দেহ ব্যবসার আখড়া খুলে বসেছেন আর তার এই ব্যবসায় অন্যতম সহযোগী তার স্বামী রতন দে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। গতকাল সন্ধ্যায় এলাকাবাসীরা গোটা বাড়িটিকে ঘিরে ফেলেন বাড়ির ভেতরে তখন উপস্থিত ছিল ১০ থেকে ১২ জন বহিরাগত মহিলা। সেই মহিলাদের কে আটক করার চেষ্টা করলে পার্লার মালকিন পিয়ালী দের স্বামী রতন দে বন্দুক নিয়ে ভয় দেখান ও গুলি চালায় এবং মেয়েগুলি কে বাড়ি থেকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করেন। স্থানীয় বাসিন্দা ঝিমলি সরকার জানান যে মদ্যপ অবস্থায় ঝামেলায় জড়ায় পার্লার মালকিন ও তার স্বামী এলাকাবাসীদের সাথে। তারপরেই শুরু হয় বিক্ষোভ। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় কাউন্সিলার ও পুলিশ কে। ঘটনাস্থলে পৌছায় এ জোন ফাঁড়ির পুলিশ। পুলিশ তিন বহিরাগত যুবক কে আটক করে নিয়ে যায় বলে জানায় এলাকাবাসীরা। এই ঘটনাকে ঘিরে এলাকায় ছিল উত্তেজনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here