বাবার কফিনবন্দি নিথর দেহ বাড়িতে রেখে বিয়ের পিড়িঁতে বসলেন ছেলে

0
712

সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- বাড়িতে বাবার কফিনবন্দি নিথর দেহ। অন্যদিকে বিয়ের পিড়িঁতে বসলেন ছেলে। এই চঞ্চল্যকর ঘটনার সাক্ষী থাকলেন বসিরহাটের বাদুড়িয়া থানার উত্তর দিয়ারা গ্রামের এলাকাবাসী। কিন্তু ছেলের বক্তব্য সে তাঁর বাবার কথা রাখতেই এই বিয়ে করেছেন। মঙ্গলবার সকালে বাদুড়িয়ার দিয়ারা গ্রামের বাসিন্দা অসিতবরণ মণ্ডলের (৬৬) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়। অসিতবরণ মণ্ডল ও তাঁর স্ত্রী আলো দেবীর একমাত্র ছেলে হল কৃষেন্দু মণ্ডল। বেশ কয়েক মাস অসিত বাবুর ছেলে কৃষেন্দুর বিয়ে ঠিক হয়েছিল গড়িয়াহাটের কালিকাপুর এলাকার বাসিন্দা মনি সাহার সাথে। বুধবার ছিল তাদের বিয়ের এই শুভদিন। বিয়ের সমস্ত আয়োজনও সব ঠিকঠাক হয়েছিল। অসিত বাবুর সমস্ত আত্মীয় তাদের বাড়িতে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন। কিন্তু আচমকাই ঘটে গেল বিপত্তি। অনুষ্ঠানের মধ্যেই হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন অসিত বাবু। স্থানীয় হাসাপাতালে নিয়ে যেতে গেলে সকালে তার মৃত্যু হয়। ছেলে কৃষেন্দু বাবার সৎকারের ব্যবস্থা করছিলেন হঠাৎই তার মা আলো দেবী ছেলেকে বিয়ে করার কথা বলেন। মায়ের কথায় কৃষেন্দু বিয়েতে রাজি হয়। বাড়িতে স্বামীর মৃতদেহ বরফ চাপা দিয়ে ছেলেকে বিয়ের পোশাক পরিয়ে পাশের এক মন্দিরে বিয়ে দেবার জন্য নিয়ে যান। কনেপক্ষ খবর প্যে ওই মন্দিরে অপেক্ষা করছিলেন। কৃষেন্দুর বক্তব্য বাবা, মায়ের কথায় মেয়েটির পরিবারের সন্মান রাখতেই এই বিয়ে করলাম। বিয়ে শেষে বাবার নিথর দেহ জড়িয়ে শোকে ভেঙে পড়লেন নতুন দম্পতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here