মায়ের মৃতদেহকে ফেলে রেখে সম্পত্তির ভাগবাটোয়ারা করতে ব্যস্ত তিন সন্তান

0
550

সংবাদদাতা, উত্তর দিনাজপুরঃ-

বড়িতে মায়ের মৃতদেহকে ফেলে রেখে সম্পত্তির লোভে ভাগবাটোয়ারা করতে ব্যস্ত হয়ে পড়লেন তিন সন্তান। এই মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী রইল উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ সোহরাই মোড় এলাকাবাসী। এদিন সকাল বেলায় ওই মহিলার মৃত্যু হলেও বিকেল পর্যন্ত তাঁর মৃত দেহ বাড়িতেই পড়ে থাকে। মৃতার নাম নিয়তি দত্ত। তিনি একটি প্রাথমিক স্কুলে শিক্ষকতার কাজ করতেন। ৬ মাস আগে তাঁর স্বামীর মৃত্যুর হয়। স্বামীর মৃত্যু পর তিনি তাঁর কাছেই থাকা শুরু করেন। পাশেই থাকতেন নিয়তি দেবীর তিন সন্তান। বুধবার সকালে নিয়তি দেবীর মেয়ে তার মাকে বিছানায় পড়ে থাকতে দেখেন। এরপর তাঁর মেয়ে প্রতিবেশীদেরকে বাড়িতে ডেকে আনেন। কিন্তু তখনও নিয়তি দেবীকে মৃত বলে ঘোষনা করেন নি চিকিৎসক। এই সুযোগ নিয়ে নিয়তি দেবীর তিন সন্তান সম্পত্তির ভাগবাটোয়ারা করতে শুরু করে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে, তাড়াতাড়ি ওই তিন যুবক ডেকে আনেন জমি মাপার লোক। এবং জমি মাপার লোকটি সমান ভাবে জমি ভাগ করে দেন ওই তিন যুবকের মধ্যে। এরপর ওই জমির চত্বরে খুঁটিও তিন পুঁতে দেন তিন যুবক। নিয়তি দেবীর ছেলেরা তাঁর মাকে একটি কাপড়ে জড়িয়ে বাড়িতে রেখে দেয় তাঁর মৃতদেহটি। সারাদিন এই ঘটনা দেখে এলাকাবাসী চরম ক্ষোভে ফেটে পড়েন। পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। যদিও নিয়তি দেবীর তিন সন্তান নিজের বোনকেই এই ঘটনার কাঠগোড়ায় দাড় করিয়েছেন। তাদের দাবী মাকে তাঁর বোনকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে বাধা দেয়। পুলিশ এলাকাবাসীর মতামত নিয়ে ইতিমধ্যেই তিন যুবককে নিজেদের হেপাজতে নিয়েছে। পুলিশের তরফ থেকে ওই বৃদ্ধ মহিলার সৎকার করা হয়েছে। তবে এই ঘটনায় এলাকাবাসী রীতিমতো লজ্জায় ও ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here