“কান ধরে ওঠবস” কি শুধুই শাস্তি, নাকি “সুপারব্রেন ইয়োগা”

0
611

এই বাংলায়, নিউজ ডেস্কঃ “সুপারব্রেন ইয়োগা”-র নাম হয়তো অনেকেই শোনেন নি। কিন্তু “কান ধরে ওঠবস” করার কথা শোনেন নি এমন মানুষ বোধহয় পাওয়া যাবে না। কারণ আমরা প্রত্যেকেই ছাত্রজীবনে স্কুলে বা প্রাইভেট টিউশন পড়তে গিয়ে কোনও না কোনও সময় একবার হলেও শাস্তিস্বরূপ কান ধরে ওঠবস করে এসেছি। তা সে লজ্জার খাতিরে কেউ শেয়ার করুন বা নাই করুন। কিন্তু এই বাংলায় ওয়েব পোর্টাল আপনাকে হলফ করে বলতে পারে, আজকের আমাদের এই প্রতিবেদন পড়ার পর আপনি আপনার সেই স্কুল জীবনের দিনের কান ধরে ওঠবস করার গল্প নিজে থেকেই অন্যের সাথে শেয়ার করবেন। শুধু তাই নয়, এই প্রতিবেদন পড়ার পর রাস্তা-ঘাটেও যদি কোনও মানুষকে কান ধরে ওঠবস করতে দেখেন তাহলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। যাই হোক, অনেক হল হেয়ালি। এবার আসা যাক আসল প্রতিবেদনে।
দৈনন্দিন জীবনে আমরা যেমন সময়ের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে চলেছি তেমনি প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে চলেছি কিভাবে নিজের শরীরকে সুস্থ ও সতেজ রাখত পারব তা নিয়েও। নিজের নিজের শরীর সুস্থ রাখতে প্রত্যেকে আমরা নিজের নিজের পছন্দ মতো পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকি। যেমন – জিম, যোগ-ব্যায়াম, প্রাতঃভ্রমণ, প্রাণায়াম ইত্যাদি। তবে এবার থেকে এইসমস্ত কিছুর সঙ্গে আপনার প্রত্যেক দিনের রুটিনে যোগ করে নিন “কান ধরে ওঠবস” করাকেও। না না, এটা এই বাংলায় নয়, এমনই উপদেশ দিচ্ছেন আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার রেডিওলজিক্যাল বিভাগের বিশেষজ্ঞরা। গবেষণার পরিভাষায় তাঁরা এই পদ্ধতির নাম দিয়েছেন ‘সুপারব্রেন ইয়োগা’। এই গবেষকরা জানাচ্ছেন, প্রত্যেক দিন মাত্র তিন মিনিট এই ‘সুপারব্রেন ইয়োগা’ করলে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায় কয়েক গুণ। গবেষণায় পাওয়া তথ্য থেকে জানা গেছে, কান ধরে ওঠবস করার সময় আমরা যে কানের নরম অংশ (কানের লতি)-কে হালকাভাবে চেপে ওঠবস করি তার ফলে মস্তিস্কে একধরনের আকুপ্রেসের অনবরত পৌঁছাতে থাকে। আমেরিকার গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেছেন, একজন মানুষ যখন ‘সুপারব্রেন ইয়োগা’ বা “কান ধরে ওঠবস” সঠিক নিয়ম মেনে করছেন সেক্ষেত্রে তার মস্তিষ্কের ডান ও বাম দিকে যে চঞ্চলতা ছিল তা সম্পূর্ন শান্ত হয়ে গেছে। শুধু তাই নয়, এই পদ্ধতিতে মানুষের মানসিক চঞ্চলতা যেমন হ্রাস পায়, তেমনি একজন ব্যক্তির কর্মক্ষমতা উল্লেখযোগ্য ভাবে বৃদ্ধি পায়। তাহলে বুঝতেই পারছেন তো কান ধরে ওঠবসের কি সুফল? লজ্জা ঝেড়ে ফেলে শরীর ও মনকে সুস্থ রাখতে শীঘ্রই শুরু করুন ‘সুপারব্রেন ইয়োগা’। যদিও এই ব্যায়াম করার জন্য কিছু নির্দিস্ট পদ্ধতি অনুসরণ করার কথা মাথায় রাখতে বলেছেন বিশেষজ্ঞরা।
এবার একনজরে দেখে নেওয়া যাক কি সেই পদ্ধতিগুলি –

১। বিশেষ করে মহিলাদের জন্য এই পদ্ধতি। কারণ প্রায় সমস্ত মহিলারাই প্রায় সবসময় কানের পড়ে থাকেন। তাই এই ব্যায়াম করার সময় অবশ্যই কানের দুল বা কানের খুলে ফেলুন।
২। পুরুষ এবং মহিলা দুজনের ক্ষেত্রেই ‘সুপারব্রেন ইয়োগা’ করার সময় মুখ বন্ধ করে ঠোঁটের সঙ্গে জিভ স্পর্শ করে রাখতে হবে।
৩। এর পরবর্তী পর্যায়ে বা-হাত দিয়ে ডান কান এবং ডান হাত দিয়ে বা কানের লতিতে হালকা চাপ দিয়ে ধরতে হবে। এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে দুই হাতেরই বৃদ্ধাঙ্গুল যেন সামনের দিকে থাকে।
৪। এবার স্বাভাবিক নিঃশ্বাস নিতে নিতে ধীরে বসুন এবং নিঃশ্বাস ছাড়তে ছাড়তে উঠুন।
৫। দিনে অন্তত তিন মিনিট এইভাবে নিয়মিত করতে পারলে মস্তিষ্কের অভ্যন্তরের স্নায়ুগুলি তাদের পুরনো শক্তি ফিরে পাবে এবং আপনিও ফিরে পাবেন আপনার কর্মচঞ্চলতা।