প্রয়াত সাংসদ তাপস পাল কে নিয়ে বুজরুকির ‘প্রেত সভা’ বসছে আসানসোলে, খোঁজ নিচ্ছে তৃনমূল কংগ্রেস

0
1219

মনোজ সিংহ, দুর্গাপুরঃ- তৃনমূল কংগ্রেসের সদ্য প্রয়াত সাংসদ ও চলচ্চিত্র তারকা, তাপস পাল কে নিয়ে বুজরুকির অভিযোগে এবার তোলপাড় সোস্যাল মিডিয়া। গত এক সপ্তাহ ধরে ‘রাতের কুহেলী’ নামের একটি ইউ টিউব চ্যানেল প্রয়াত তাপস পালের প্রেতাত্মা কে প্ল্যানচেট করে নাকি ‘ডেকে’ আনছে আর কয়েকটি ঘোষ্ট মিটার (ভূত মাপার যন্ত্র), কেটু মিটারের রকমারি আলো জ্বালিয়ে, নিভিয়ে ‘প্রমান’ দিচ্ছে যে প্রয়াত তাপস পালের আত্মা ওই ঘরে ঘোরাফেরা করছে। এবারও এই সব বুজরুকির পান্ডা আসানসোলের “মস্তিস্ক বিকৃত” মাঝ বয়সী “ভূত শিকারি” বিশ্বনাথ মুখারজী। এবার তার শাগরেদ রোজিনা খাতুন নামের এক যুবতী। বিশ্বনাথ আহ্লাদে বলছেন, “অনেকদিন পর রোহিনা আবার আমার সাথে এসেছে”।
কখনো জ্ঞানেশ্বরী এক্সপ্রেসের ভাঙাচোরা কামরা, কখনো দুর্গাপুরের শিবাজী রোড বয়েজ স্কুল আবার কখনো কলকাতার নাগেরবাজার উড়ালপুলে ভূত ঘোরাফেরা করছে বলে লাইভ ভূত প্রদর্শনী করার সময় বিস্তর বিতর্কে পড়েন বিশ্বনাথ। একবার দুর্গাপুরের নাচন ড্যামে ভূত শিকার করতে গিয়ে সেখানকার গ্রামবাসীদের তাড়া খেয়ে পালিয়ে বাঁচেন উদ্ভ্রান্ত ওই যুবক।
এবার টানা ২৫ মিনিটের একটি ভিডিও আপলোড করে করিত কর্মা বিশ্বনাথ দাবি করছেন প্রয়াত তাপস পাল অন্ততঃ তিন বার তার উপস্থিতির প্রমান দিয়েছেন প্ল্যানচেটে। প্রয়াত তারকার দু’টি ছবির সামনে মোমবাতি, ঘোষ্ট মিটার রেখে লাগাতার প্রয়াত তাপস পালের প্রেতাত্মাকে আহ্বান করছেন বিশ্বনাথ। ভিডিও শুরুর ১১ মিনিট ৩৭ সেকেন্ডের মাথায় বিশ্বনাথের আকুল প্রাথনায় সাড়া দিয়ে তাপসের প্রেতাত্মা ঘোষ্ট মিটারে তিনবার সশব্দে লাল-নীল আলো জ্বালিয়ে ‘প্রমান’ করলেন যে “তিনি” এসে গেছেন। তার পরবর্তী দু’মিনিট ধরে কখনো দিক নির্ণয়ের কম্পাসের কাঁটা বনবন করে ঘুরিয়ে প্রয়াত তাপসের ‘আত্মা’ নাকি জানান দিলেন- ‘তিনি আছেন, তিনি থাকবেন’। আর সব শেষে? ইউ টিউবের পর্দা জুড়ে দেখা যাচ্ছে- প্রয়াত তাপস পালের ছবির সামনে দাঁড় করিয়ে রাখা একটি লাল মোমবাতি দুলে উঠল আর তারপর বেঁকে চুরে থর থর করে কাঁপতে থাকা টেবিলের ওপর উল্টে পড়ে গেল জ্বলন্ত মোমবাতি। গোটা ঘরে লন্ড ভন্ড দশা। তড়িঘড়ি বিশ্বনাথ বলে উঠলেন, “তাপস পাল আজো আছেন”। তারপরই তার দাবি “এখানেই শেষ নয়। আবার ওনাকে ডাকবো। তবে সাংসদ নয়, অভিনেতা তাপস পাল কে”।
এ দিকে, দলের প্রয়াত সাংসদ কে নিয়ে এই লাইভ মস্করায় বিস্তর বিরক্ত তৃনমূল কংগ্রেস। দলের পক্ষ থেকে ‘বিকার গ্রস্ত বিশ্বনাথের’ অবিলম্বে শাস্তির দাবি উঠেছে। খোঁজ করা হচ্ছে তার ‘প্রেত সভা’ বসানোর স্টুডিও ঘরটিও। আসানসোলের মেয়র জীতেন্দ্র তেওয়ারি মঙ্গঁলবার বলেন, “আমরা ব্যাপারটা ভালো করে খোঁজ নিচ্ছি”।
এ দিকে, ‘রাতের কুহেলী’ নামের বুজরুকি ঐ ভিডিও টি ইতিমধ্যেই ২ লক্ষ ৫২ হাজার জন দেখে ফেলেছেন। পছন্দ করেছেন ৫০০০ জন আর অপছন্দ করেছেন ২২০০ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here