চিনা পণ্য বয়কটে তারকারা সকলে একজোট হয়ে বার্তা দিলেন

0
489

এই বাংলায় ওয়েব ডেস্কঃ- লাদাখে চিনা আগ্রাসন শুরু হওয়ার পরই সোনাম ওয়াংচুক চিনা পণ্য বয়কট করার ডাক দেন। চায়না পণ্য বয়কট করতে তিনি সকলকে এগিয়ে আসতে বলেন।চায়না পণ্য ব্যবহার বন্ধ করলে চীনের অর্থনীতিতে এর প্রভাব পড়বে। এ প্রসঙ্গেওয়াংচুক বলেন-“চিনা পণ্য বয়কট করলেন চিনের অর্থনীতির ওপরও চাপ পড়বে এর ফলে সরকার পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।”ভারত থেকে ব্যবসা করে অর্থে মজবুত হয়ে চায়না ভারতেই যুদ্ধ করতে চাইছে এই বিষয়টি বলে তিনি জনগণের দিকে একটি বার্তা পৌঁছে দেন-চায়না পণ্য বয়কটের ডাক দেন তিনি।ওয়াংচুক এর ডাকে সাড়া দিয়ে জনপ্রিয় অভিনেতা মডেল মিলিন্দ সোমন টিকটকের জগৎ থেকে বেরিয়ে আসেন। মিলিন্দ সোমনের পর এবার এরশাদ ওয়ারসি, রনবীর শোরেরা চিনা পণ্য বয়কট করলেন।
চিনা পণ্য বয়কট প্রসঙ্গে অভিনেতা আরশাদের বক্তব্য ছিলো -“আমি সচেতনভাবেই চিনা পণ্যের ব্যবহার বয়কট করছি। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার্য বেশিরভাগ জিনিসই যেহেতু চাইনার তাই এগুলো থেকে একেবারে বেরিয়ে সময় লাগবে। তবে আমার বিশ্বাস যে একদিন আমাদের দেশ পুরোপুরি চাইনিজ পণ্য থেকে মুক্ত হবে। আপনারা ব্যক্তিগতভাবে চিনা পণ্য বয়কট এর ব্যাপারে উদ্যোগ নিন।”
টেলি অভিনেত্রী কাম্যা পাঞ্জাবি ও চিনা পণ্য বয়কট প্রসঙ্গে লিখেছেন-“আমি চিনা অ্যাপ ব্যবহার করি না। সকলকেই অনুরোধ করছি যে আপনারা বাণিজ্যিক ভাবে জড়িত সকল চিনা পণ্যের ব্যবহার বন্ধ করে দিন। ভারতীয় হিসেবে ভারতীয় পণ্য কেনা উচিত।”আয়ুষ্মান খুরানা ড্রিম গার্ল পরিচালক রাজ শান্ডিল্য চাইনা দ্রব্য বয়কট করতে সকল নাগরিকদের আহ্বান করেছেন। তিনি বিষয় নিয়ে লিখেছেন-“আমি আমার সকল বন্ধুদের কাছে অনুরোধ করবো যে একজন দায়িত্ববান নাগরিক হিসেবে চিনা পণ্য বয়কট করুন। এই পদক্ষেপটি গ্রহণ করে দেশের অগ্রগতিতে যোগ দিন।”
অতুল কাসবেকার আবার চিনা পণ্যের বিরোধিতায় ট্রাম্পের নেতৃত্বদায়ী মানসিকতার প্রশংসা করে ট্রাম্পের সাংবাদিক সম্মেলনের ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন-” ট্রাম্পের সাংবাদিক সম্মেলনের এই ভিডিওটি নিয়ে আপনি চাইলেই ইচ্ছা মতো মিম বানাতে পারেন কিন্তু চিনের পণ্য বিরোধিতায় তিনি যে সাহস দেখিয়েছেন তা প্রশংসনীয়।এই মহামারির দিনে দায়বদ্ধতা নিয়ে কোনো একজন মানুষের এগিয়ে আসা প্রয়োজন ছিল যা উনি করেছেন।আমার মনে হয় গোটা বিশ্বের মানুষ এর উচিত একত্রিত হয়ে চিনকে একঘরে করার।”প্রসঙ্গত উল্লেখ্য একসময় যে চাইনা‌ আপ টিক টক ভারতের কোটি কোটি মানুষ ব্যবহার করত তার রেটিং এখন তলানীতে গিয়ে ঠেকেছে। বহু মানুষ এই এপটিকে উড়িয়ে দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here