”জয় শ্রীরাম’ না বললে খতম করা হবে’ বর্ধমান সহ সভাধিপতিকে ফোনে হুমকি

0
762

সংবাদদাতা, বর্ধমানঃ- ‘ জয় শ্রী রাম না বললে খতম করে দেওয়া হবে’, এমনি হুমকির মুখে এবার পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি। বৃহস্পতিবার তাঁর সরকারি ফোনে পর পর তিনবার এমন হুমকি আসে তিনটি আলাদা আলাদা নম্বর থেকে, যা নিয়ে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায় রাজনৈতিক মহলে।
পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি দেবু টুডু ছিলেন তাঁর অফিসেই। বেলা ১২.১২ টা নাগাদ প্রথম ফোনটি আসে। ট্রু কলারে নাম দেখা যায় দেবাশিষ সরকার। পরে জানা যায় ইনি বিজেপি’র কিষান মোরচার সক্রিয় সদস্য ও বর্ধমান বিধানসভা এলাকায় দলের আহ্বায়ক। দেবু বলেন, ” প্রথম ফোনটি ধরতেই আমাকে জয় শ্রী রাম বলতে বলা হল। আমি বলতে না চাওয়ায় হুমকি – ‘ বাঁচার ইচ্ছে থাকলে বল’! আমি গোড়ায় হকচকিয়ে যাই”। তিনি বলেন, ” কিচ্ছুক্ষন পর ১২.৩৬ টা এবং ১২.৪৩ টায় পর পর ফোন। একই হুমকি”। পরে পুলিশ জেনেছে পরবর্তী দুই কলারের নাম – রাজু কুমার ও কৃষ্ণেন্দু রায়। দু’জনেই বিজেপির দলীয় কর্মী। জেলা বিজেপি সভাপতি সন্দীপ নন্দী বলেন, ” দলীয়ভাবে এমন ফোন করার কোনো নির্দেশ কাউকেই দেওয়া হয়নি। কেউ করলে তার ব্যক্তিগত ব্যাপার”।
এদিকে, পুলিশের কাছে দেবু অভিযোগ দায়ের করার পর রীতিমতো বেকায়দায় পড়ে হুমকিদাতাদের একজন দেবাশিষ স্বীকার করেন সহ সভাধিপতির নম্বরে ফোন করার কথা। তিনি বলেন, ” হ্যাঁ। আমি ফোন করেছিলাম ওনার নম্বরে। তবে, কোনো হুমকি দিইনি। আমি শুধু ‘জয় শ্রী রাম’ বলেছিলাম। এতে দোষের কি আছে?” কিন্তু হঠাৎ কেন এমন ফোন করার বাসনা, জানতে চাওয়ায় দেবাশিষ বলেন”, সম্প্রতি উনি হুমকি দেন যে জয় শ্রী রাম বললে জেলা ছাড়া করা হবে। তাই আমি এটা করেছি।
গোটা বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তর্জাও। দেবু টুডু বলেন, ” এই নোংরা লোকগুলো সব সময়ই গায়ে পড়ে ঝগড়া বাঁধায়। এখন আবার হুমকি দিচ্ছে। আমি পুলিশি সাহায্য চেয়েছি। পরে রাজনৈতিক ভাবে এসবের মোকাবিলা করা হবে”। দেবাশিষের আনা সাফাই এর জবাবে দেবু বলেন, ” রাম নাম করা তো অপরাধ নয়। রাম নাম করুন। যত ইচ্ছে। কিন্তু, বিজেপি রাম কে যে নোংরা উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছে, আমি তার বিরুদ্ধে”। তিনি বলেন, ” রাম কারো ব্যাক্তিগত সম্পত্তি নয়”!
উল্লেখ্য, গত অগষ্ট মাস থেকে এই নিয়ে তিনবার টেলিফোনে খুনের হুমকির মুখে পড়লেন দেবু। গত ১৯ অগষ্ট মাঝরাতে মোট ১৫ বার তিনটি আলাদা নম্বর থেকে তাকে আশালীল গালাগালি করা হয়। তদন্তে নেমে পুলিশ নদিয়ার পলাশিপাড়া থানা এলাকা থেকে সঞ্জীব ঘোষ নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে। সঞ্জীব, দেবুর অপরিচিত। পরে পুলিশ জানতে পারে, সঞ্জীবের নম্বর হ্যাক করে দেবুকে বার বার হুমকি দেওয়া হয় ঐ রাত্রে। আবার ১৫ সেপ্টেম্বর ভোররাত্রে পর পর ছয় বার তিনটি আলাদা নম্বর থেকে ফোন করে দেবুকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়। সেই অপরাধীদের এখনো হদিশ পায়নি জেলা পুলিশ। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার আবার টেলি – হুমকির মুখে সহ সভাধিপতি। তবে, এবারেরটিতে হুমকিদাতাদের রাজনৈতিক পরিচয় তারা নিজেরাই কবুল করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here