পি.কে.র টিম বুঝে গেছে- দুর্গাপুরে তৃনমূলের নেতাদের পায়ের তলায় মাটি নেই

0
5262

বিশেষ প্রতিনিধি, দুর্গাপুরঃ- কারো কারো মাটিতে পা পড়ে না আবার কারো’র পায়ের তলায় মাটি টাই নেই। কেউ ‘উড়ে এসে জুড়ে বসা’, তো কেউ আবার তৃনমূলে’র লোক হয়েও ছিন্নমূল।
দলের খোল নলচে মেরামত করতে তৃনমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো নিয়োজিত ভোট গুরু প্রশান্ত কিশোরের ‘আই-প্যাক’ টিম এসেছে দুর্গাপুরে। এখানে এসে ‘পিকে’র টিমের লোকেদের চোখ কপালে ওঠার দশা। ওদের অনেকেরই মনে হয়েছে- “এই সব লোকেরা ক্ষমতাসীন দলের নেতা? কাউন্সিলার? এরা জেতে কি করে”?
‘কি করে জেতে’ তা অবশ্য ২০১৭’র পুরভোটে জিতে আসা কাউন্সিলার ভাল মতোই জানেন। তারা এ-ও জানেন আরো ভাল করে, যে- ও ভাবে আর জেতা যাবে না। তাই কেউ কেউ পাততাড়ি গোটানোর জন্য ফুরফুরে ‘পিকনিক’ মেজাজে, তবে, দলটা যারা সচেতন ভাবে করে, তারা অবশ্য গভীর চিন্তায়।
চিন্তায় খোদ প্রশান্ত কিশোরের ‘টিম পিকে’ও। সংস্থার প্রতিনিধিরা কয়েক দিন ধরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন শহরের বিভিন্ন এলাকায়। বেছে বেছে ‘পরীক্ষা’ নিচ্ছেন তৃনমূল কংগ্রেসের নেতা, কাউন্সিলারদের। তাদের প্রশ্নের ঠেলায় যাকে বলে প্রানান্তকর বেহাল দশা দুর্গাপুরের নেতাদের। মুখ ঘুরিয়ে কেউ কেউ বলেই বসছেন, “এই বয়সে এ ভাবে পরীক্ষা দিয়ে পার্টি করবো নাকি? আমার জনভিত্তি যে আছে তার প্রমান খাতায় লিখে দেওয়া যায় নাকি”?
টিম পিকে ইতিমধ্যেই দুর্গাপুর পুরসভার মেয়র দিলীপ অগস্তি, কাউন্সিলার ও মেয়র পরিষদ প্রভাত চ্যাটারজি, পবিত্র চ্যাটারজি, জহর ব্যানারজি, ধমেন্দ্র যাদব, রাখি তিওয়ারি, রাজীব ঘোষেদের পরীক্ষা নিয়ে নিয়েছে। এরা কেউই সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেন নি বলে জানা গেছে। দল সম্ভবত বুঝেই গেছে- “এদের পায়ের তলায় মাটি বেশ দুর্বল”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here