তৃণমূল কর্মীর নয় বছরের ছেলের খুনে অভিযুক্ত বিজেপি কর্মী

0
763

সংবাদদাতা, বর্ধমান :- গত বুধবার সন্ধ্যায় তৃনমুল পঞ্চায়েত সদস্য বুদ্ধদেব দলুই এর নয় বছরের ছেলে সন্দীপকে অপহরণ করা হয় । অভিযোগ এরপরেই একের পর এক ফোন আসে ক্ষতিপূরণ চেয়ে । জানা গেছে সন্দীপ এই দিন সন্ধ্যায় গ্রামে মনসা পূজা দেখতে যাচ্ছে বলে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপরে আর বাড়ি ফেরেনি সন্দীপ । রাত প্রায় নটার সময় প্রথম বুদ্ধদেব বাবুর ফোনে একটি ফোন আসে । ফোনে বলা হয় তার ছেলে সন্দীপকে অপহরণ করা হয়েছে । প্রথমে সাত লক্ষ টাকা , তার পরের ফোনে পাঁচ লক্ষ , শেষমেশ বৃহস্পতিবার সকলে তিন লক্ষে কমে দাঁড়ায়। কিন্তু বুদ্ধদেব দলুই ফোনে এত টাকা জোগার করতে দিতে পারে এমনই আর্থিক ক্ষমতা তার নাই বলে । বুদ্ধদেব দলুই এক জোন দিন মজুর । তার পর থাকে ফোন সুইচ অফ হয়ে যায় । ফোনে অপহরণকারীরা বারবার বুদ্ধদেব দলুই কে এ কথা স্মরণ করিয়ে দেন যে পুলিশের কাছে গেলে জীবিত অবস্থায় তার ছেলেকে পাওয়া সম্ভব হবে না । কিন্তু এতসব এরপরও বুদ্ধদেব সাহস করে স্থানীয় পুলিশের সাহায্য চান। বুদ্ধদেব দলুই এর নয় বছরের ছেলে সন্দীপ দলুইকে হাত পা বাঁধা অবস্থায় সাঁকোর ক্যানেলের জলে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ ।

স্থানীয় থানার পুলিশ দ্রুততার সাথে তদন্তে নেমে পড়েন। খোঁজ করা হয় যে মোবাইল থেকে ওই ফোনে কথা বলা হচ্ছিল সেটির। জানা যায় যে ব্যক্তির ওই ফোনটি সেই ব্যক্তি দীর্ঘ তিন মাস আগে তার মোবাইল সিম সমেত চুরি হওয়ার রিপোর্ট পুলিশের কাছে আগেই লিপিবদ্ধ করেছিলেন। তারপর থেকেই পুলিশের নজর যায় মোবাইলের টাওয়ার লোকেশনের দিকে । শুক্রবার খুব সকালে পুলিশ এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত থাকা সাঁকো গ্রামেরই তিন যুবককে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার হওয়া যুবকেরা হল সুব্রত মাঝি , জয়ন্ত বাগ , মঙ্গলদীপ দলুই । এরা সবাই সাঁকো মেটে পাড়ার বাসিন্দা ।

বুদ্ধদেব দলুই জানান যে তার ছেলে সারাদিনই জয়ন্ত বাগের কাছেই থাকত। কাকা, কাকা বলে তার সঙ্গে সব সময় খেলা করতো । আর সেই জয়ন্ত ই নাকি তার ছেলের খুনি। স্থানীয় গ্রামের সূত্র থেকে জানা গেছে জয়ন্ত বাগ ২০১৯ এর ভোটে বিজেপির বুথ এজেন্ট হিসেবে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছিল এবং তিনি একজন বিজেপির সক্রিয় কর্মী । বাকি দুইজন মঙ্গলদীপ দলুই ও সুব্রত মাঝি হালেই সিপিআইএম থেকে বিজেপিতে যোগদান করেছে।

এদিকে বিজেপি অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বিজেপি র পূর্ব বর্ধমান জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জয়দেব চ্যাটার্জী জানিয়েছেন তাদের দল এই ধরনের নরকীয় ঘটনার সাথে কোনভাবে যুক্ত নয়, যে বা যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি করেন। গোটা গ্রাম শোকে মুহ্যমান । গোটা গ্রাম ক্ষোভে ফুঁসছে । গ্রামবাসীদের ক্ষোভ গিয়ে পড়ে খুনে অভিযুক্তদের বাড়ি । গ্রামবাসীরা বাড়ি ভাঙচুর চালায় । শাবল , গাঁইতি দিয়ে খুনে অভিযুক্তর দালান বাড়ি ভাঙতে থাকে । গ্রামবাসীদের দাবি তিন অভিযুক্তকে দ্রুত বিচার সম্পন্ন করে ফাঁসি দেওয়া হোক যাতে ভবিষ্যতে কেউ একাজ করতে সাহস না করে ।

পূর্ব বর্ধমান জেলার পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখার্জি জানিয়েছেন বুধবার রাত্রেই নয় বছরের ছেলে সন্দীপ দলুই কে খুন করা হয়েছিল। পুলিশ দ্রুততার সাথে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে যথাযথ আইনে কেস রুজু করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here