অবশেষে এই বছর পুরীর রথযাত্রার অনুমতি দিলো সুপ্রিমকোর্ট

0
216

এই বাংলায় ওয়েব ডেস্কঃ- সুপ্রিম কোর্ট বিচার করে রায় দিয়েছিলেন এইবার রথযাত্রা বন্ধ থাকবে। এরপর স্বাভাবিক ভাবেই সকল ভক্ত মন্ডলীর মন খারাপ হয়ে যায়। কারণ ধর্মীয় নিয়ম অনুসারে এই বছর ২৩ জুন যদি রথ না চলে তাহলে আগামী ১২ বছর রথযাত্রা অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে এমনটাই নিয়ম। তাই এই আদেশ বিবেচনা করবার জন্য ২০টি পিটিশন জমা পড়ে সুপ্রিম কোর্টে পুনরায়।

যারা পিটিশন জমা করেন তারা অনুরোধ করেন যে তারা শর্তসাপেক্ষে এই রথযাত্রা অনুষ্ঠান করবেন। যেসকল পূজারীদের করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে একমাত্র তারাই এই উৎসবে হাজির হবেন। বাকিরা ঘরে বসে লাইভ অনুষ্ঠান দেখবেন। পুরীর রাজা এই ভাবেই সমস্ত অনুষ্ঠানটি করবেন যাতে কোনো রকম করোনা সংক্রমণ না ছড়ায়।

ওড়িশার বিজেপি নেতার পক্ষ থেকেও রথযাত্রায় বিষয়টি পুনর্বিবেচনার আর্জি করা হয়।

আর তারপর ২২ শে জুন সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয় শর্তসাপেক্ষে হবে পুরীর রথযাত্রা। রথ যাত্রার ওপর নিষেধাজ্ঞা উঠে যায়। এই রায়ে বলা হয় যে- হ্যাঁ রথ উৎসব হবে। তবে এমনভাবে এই উৎসব করা হবে যাতে করোনার সংক্রমনের এর থেকে না যায় ছড়ায়। এমনকি পুরী ছাড়া উড়িষ্যার আর অন্য কোথাও রথযাত্রা পালন হবে না। তাই ২৩ জুন রথের চাকা ঘুরবে পুরীতে। সকল ভক্ত মন্ডলী আনন্দের সাথেই লাইভ অনুষ্ঠান দেখুন।

অন্যদিকে দুর্গাপুরের শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের স্নানযাত্রা পূর্ণ সরকারি নিয়মের বিধি নিষেধ মেনে উদযাপিত হয়েছিল ডেভিড হেয়ার শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের মন্দিরে। ডেভিড হেয়ার শ্রী শ্রী জগন্নাথ মন্দির কমিটির সম্পাদক শ্রী তপন মুখার্জি জানান “প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের স্নানযাত্রা হচ্ছে। কিন্তু তা সম্পূর্ণ সরকারি আইন মেনে হয়। তার জন্য তারা তাদের মূল ফটকে এবং মন্দিরের গর্ভগৃহের সামনে নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েন করেছেন, যাতে ভক্তরা নির্বিঘ্নে সরকারি নিয়ম কানুন মেনে জগন্নাথ দেবকে স্নানযাত্রা অংশগ্রহণ করতে পারেন।” তিনি আরও জানান যে এ বছরে আর শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের বিগ্রহ স্থানীয় রাজীব গান্ধী স্মারক ময়দানে রথে চেপে যাবেন না।
প্রতিবছরই নিয়ম মেনে রথের দিন শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবকে রথের উপরে চাপিয়ে দীর্ঘ তিন কিলোমিটার রাস্তা পেরিয়ে ইস্পাত নগরী মাঝে অবস্থিত রাজীব গান্ধী স্মারক ময়দানে বা মেলা ময়দানে রাখা হতো ভক্তদের দর্শনের উদ্দেশ্যে মাসির বাড়ি বলে চিহ্নিত করে। কিন্তু এবছর সরকারি নিয়মের বিধিনিষেধের জালে তা আর সম্ভব হচ্ছে না। মন্দির কমিটির সম্পাদক তপন মুখার্জি জানান যে এবছর মন্দিরের বিগ্রহ মন্দির থেকে কাঁধে চেপে মন্দির প্রাঙ্গণের ভেতরেই একটি স্থানে অস্থায়ী মঞ্চে রাখা হবে মাসির বাড়ি মনে করে। কোনরকম জমায়েত বা ভিড়ভাট্টা না করেই পালিত হবে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা। শিল্পাঞ্চলের সমস্ত বাসিন্দাদের মনে তাই আজ বিষন্নতায় ভরা। শিল্পাঞ্চল ইস্পাত নগরী ভেতরে এই শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা কে কেন্দ্র করে যে মেলাটি হতো সেই মেলাটি একটি মহামিলন ক্ষেত্রে পরিণত হতো। কিন্তু এবছর সেটি আর অনুষ্ঠিত হবে না। জয় জগন্নাথ প্রভু কি জয়! হরি বোল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here