পঞ্চায়েতে অফিসে ঢুকে মদ্যপ অবস্থায় প্রধান কে হেনস্থার অভিযোগ বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে

0
312

সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- বাঁকুড়ার তালডাংরা থানার সাতমৌলি গ্রাম পঞ্চায়েতে ঢুকে মদ্যপ অবস্থায় প্রধান কে হেনস্থার অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে তিন জন বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে তালডাংরা থানায় লিখিত অভিয়োগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানান সাতমৌলি গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রধান গনেশ গড়াই।উল্লেখ্য গত কাল অর্থাৎ সোমবার সাতমৌলি গ্রাম পঞ্চায়েতে নতুন কিষাণ ক্রেডিট কার্ড করার জন্য ফর্ম বিতরনের কাজ চলছিল। ঐ দিনই দুপুরের পর বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী এই ফর্ম বিতরনের বিষয়কে কেন্দ্র করেই ঘটনার সূতপাত এবং রাত্রি ৮টা নাগাদ সাতমৌলি পঞ্চায়েত প্রধান তিনজন বিজেপি কর্মীর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সাতমৌলি পঞ্চায়েত প্রধান গনেশ গড়াই জানান গতকাল পঞ্চায়েতে কিষাণ ক্রেডিট কার্ডের জন্য ফর্ম বিতরন চলছিল। হঠাৎই মদ্যপ অবস্থায় বেশ কয়েক জন বিজেপি কর্মী পঞ্চায়েতের ভিতর ঢুকে তাদের কেন জানানো হয়নি এই ফর্ম বিতরনের বিষয়টি এই নিয়ে চিৎকার চেঁচামেচি করতে শুরু করে এরপরই আমার রুমে ঢুকে আমাকে ধাক্কাধাক্কি এবং আমাকে পঞ্চায়েত থেকে আমাকে বাইরে বার করে গেট দিয়ে দেবার চেষ্টা চালায়। ঐ সময় তাদের আটক করতে গেলে বা হেনস্থা করার কারন জানতে চাওয়ার চেষ্টা করা হলে বিজেপি কর্মীরা কোনো কথা না শুনেই তার উপর ধাক্কাধাক্কি চালিয়ে যায় বলে জানান সাতমৌলি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান গনেশ গড়াই। এবং এই ঘটনার পরই প্রায় ৮টা নাগাদ, পঞ্চায়েত প্রধানকে হেনস্থার প্রতিবাদে সৌরিশ গোস্বামী, ষষ্ঠী দূরে, সোমনাথ পাত্র নামে তিন বিজেপি কর্মির নামে তালডাংরা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে জানান পঞ্চায়েতের প্রধান। অন্যদিকে প্রধান কে হেনস্থা করার বিষয়টি একেবারেই মিথ্যা ঘটনা বলে দাবি করছেন তালডাংরা মন্ডল তিন এর বিজেপি সভাপতি অভিজিৎ লোহার। তিনি জানান আমাদের কর্মীরা সাতমৌলি পঞ্চায়েতে কে সি সি ফর্ম ফিলাপ চলছিল ঐ সময় আমার বিজেপি কর্মীরা পঞ্চায়েত যায়, তখন তাদের কে পঞ্চায়েতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি তাই বিজেপি জোর করে ঢুকতে গেলে তৃণমূল গুন্ডারা মারধোর করে। এবং সাথে সাথে আমার বিজেপি মার খেয়ে বাড়ি চলে আসে। আবার উলটে আমাদের বিজেপি কর্মীদের নামে থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছে ঐ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান। বিষয় সম্পূর্ন মিথ্যা প্রধানকে হেনস্থা করার বিষয়টি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here