গরমকে হারিয়ে ভোট বাঁকুড়ায়, ভোট বয়কট ৩ কেন্দ্রে

0
242

বিশেষ সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- গ্রীষ্মের দাবদাহকে কাবু করে উৎসবের মেজাজেই ভোট দিল বাঁকুড়া। রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দফায় বাঁকুড়া জেলার রাইপুর, রানিবাঁধ, শালতোড়া আর ছাতনায় ভোট ছিল শনিবার। সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ৮৩ শতাংশ ভোট পড়েছে।

দুপুর ৩টা নাগাদ রানিবাঁধের তারমাত্রার পারদ ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে যখন, তখন ওই বিধানসভার ভোটকেন্দ্রে গড় মতদান ৭২.৫৮ শতাংশ। প্রায় সব ভোট কেন্দ্রেই তখনো উৎসাহী ভোটারের থিকথিকে ভিড়। আদিবাসী অধ্যুষিত রাইপুর-রানিবাঁধে অবশ্য গ্রীষ্মের দাবদাহ কখনো ভোট রুখে দিতে পারেনি। তার ব্যতিক্রম হয়নি শনিবারও।

তবে, ভোট কিন্তু এদিন রুখেই যায় বাঁকুড়ার তিনটি বুথে। ছাতনা বিধানসভার জামথোল, কেন্দুয়া আর রানিবাঁধের তিলবাইতে সারাটা দিন যাকে বলে মাছি মেরেছেন ভোট কর্মীরা। আসেননি একজনও ভোটারও। জামথোলে সেতু আর দু’জায়গায় সড়কের দাবি। ভোট বয়কট হতেই জেলা সদর থেকে ছুটে যান প্রশাসনিক ও নির্বাচন দপ্তরের আধিকারিকরা। পরে, জেলা শাসক রাধিকা আইয়ার জানান, “ওনারা যে দাবি তুলেছেন, সেগুলি পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদের প্রকল্পের আওতায় ইতিমধ্যেই আনা হয়েছে। ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হওয়ায় কাজ শুরু করা যায়নি।”

জেলার ৪টি বিধানসভা কেন্দ্রের মোট ভোটার ছিলেন ৯৫০৪৮২জন। সর্বাধিক ভোটার রানিবাঁধে- মোট ২৫২৭০৭জন। এদিনের ভোটে বড় ধরনের কোনো গোলমালের খবর না মিললেও, ছাতনা বিধানসভা এলাকার কাঁটাপাহাড়ি ও বাগজুড়ির দুটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী শুভাশিষ বটব্যালকে ঢুকতে বাধা দেয় বলে অভিযোগ। শালতোড়ার কালিকাপুরের একটি বুথে বিজেপির পোলিং এজেন্ট মোহিত রাউৎকে মেরে বুথ থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগও ওঠে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here