পানীয় জলের হাহাকার, স্কুলে যাওয়ার বদলে জল আনতে ব্যস্ত পড়ুয়া

0
1104

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ ছোটবেলায় প্রত্যেকেই আমরা পড়েছি “জলের অপর নাম জীবন”। খাবার না খেয়ে একজন মানুষ বেশ কিছুদিন বেঁচে থাকতে পারে, কিন্তু জল ছাড়া প্রানীজগতের এক মুহূর্ত বেঁচে থাকা অসম্ভব। বর্তমানে সারা বিশ্ব জল সংকটের সম্মুখীন। ব্যতিক্রম নয় ভারতবর্ষও। বর্তমানে আমাদের দেশের বেশ কিছু রাজ্যও ভয়াবহ জলসংকটের শিকার। যে তালিকায় রয়েছে পশ্চিমবঙ্গও। পর্যটনস্থল এবং রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারদের বাসস্থান হিসেবে খ্যাত সুন্দরবন বর্তমানে ভয়াবহ জলসংকটের সম্মুখীন। ম্যানগ্রোভ অরন্য এবং নোনা জলের খাঁড়ি দিয়ে ঘেরা সুন্দরবনের মানুষ আজ এতটাই জলের সংকটে ভুগছেন যে স্কুলের পড়ুয়াদের স্কুলে যাওয়া পর্যন্ত বন্ধ হয়ে গিয়েছে। তার বদলে পরিবারের সঙ্গে জলের বালতি হাতে যেতে হচ্ছে জলের সংস্থান করতে। এমনই চিত্র ধরা পড়েছে গোসাবা ব্লকের বিভিন্ন অঞ্চলে। তবে এই সমস্যা আজকের নয়, বহু বছর ধরে সুন্দরবনের বিভিন্ন অঞ্চলের মতো গোসাবা অঞ্চলে জলের সমস্যা বহুদিনের। যা বর্তমানে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ছবিতে ধরা পড়েছে, মেঘলা আকাশের নিচে প্লাস্টিক বা কাগজ ঝুলিয়ে তার নিচে জল সংগ্রহের জন্য বালতি, ড্রাম রেখে সেখানে জল সংগ্রহ করার চেষ্টা করে চলেছেন গ্রামবাসীরা। বাড়ির পড়ুয়ারা স্কুলের ব্যাগ পিঠে নিয়ে স্কুলে যাওয়ার বদলে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে জল আনতে বহুদূরে পাড়ি দিচ্ছে। অথচ এইসমস্ত কিছু দেখেও নির্বিকার প্রশাসন। বছরের পর বছর ধরে জলের সমস্যা জারি থাকলেও প্রশাসন নির্বিকার। এমনটাই জানাচ্ছেন এলাকার বাসিন্দারা।