কী করলে গৃহবিবাদ মিটে যায়? দারিদ্র্য ঘুচে যায়?

0
770

বহরমপুর থেকে সঙ্গীতা চৌধুরীঃ- আজ বৃহস্পতিবার। আজ লক্ষ্মীর দিন।ঘরে ঘরে হবে লক্ষ্মীপুজো। আপনি কী জানেন কী করলে মা লক্ষী আপনার ওপর প্রসন্ন হবেন? কী করলে আপনার দারিদ্র্য ঘুচে যাবে?জানেন? আজকের দিনে আপনি যদি মা লক্ষ্মীর ১০৮ নাম জপ করেন শুদ্ধ মনে তবে আপনার এই নাম উচ্চারনের প্রভাবেই দারিদ্রতার নিবারণ হবে। মা লক্ষী প্রসন্ন হবেন। গৃহবিবাদ কেটে যাবে। লক্ষী দেবীর একশো আট নাম গুলো হলো- ১) প্রকৃতি, ২) বিক্রুতি, ৩) বিদ্যা, ৪) সর্বভূতহিতপ্রদা, ৫) শ্রদ্ধা, ৬) বিভূতি, ৭) সুরভি, ৮) পরমাত্মিকা, ৯) জয়প্রদা, ১০) পদ্মালয়া, ১১) পদ্মা, ১২) শুচী, ১৩) স্বাহা, ১৪) স্বাধা, ১৫) সুধা, ১৬) ধন্যা, ১৭) হিরন্ময়ী, ১৮) লক্ষ্মী, ১৯) নিত্যাপুষ্টা, ২০) বিভা, ২১) অদিত্যা, ২২) দিত্যা, ২৩) দীপা, ২৪) বসুধা, ২৫) ক্ষীরোদা, ২৬) কমলাসম্ভবা, ২৭) কান্তা, ২৮) কামাক্ষী, ২৯) ক্ষীরোদসম্ভবা, ৩০) অনুগ্রহাপ্রদা, ৩১) ঐশ্বর্য্যা, ৩২) অনঘা, ৩৩) হরিবল্লভী, ৩৪) অশোকা, ৩৫) অমৃতা, ৩৬) দীপ্তা, ৩৭) লোকাশোকবিনাশিনী, ৩৮) ধর্মনিলয়া, ৩৯) করুণা, ৪০) লোকমাতা, ৪১) পদ্মপ্রিয়া, ৪২) পদ্মহস্তা, ৪৩) পদ্মাক্ষী, ৪৪) পদ্মসুন্দরী, ৪৫) পদ্মভবা, ৪৬) পদ্মমুখী, ৪৭) পদ্মনাভপ্রিয়া, ৪৮) রমা, ৪৯) পদ্মমালাধরা , ৫০) দেবী,৫১) পদ্মিনী, ৫২) পদ্মগন্ধিণী, ৫৩) পুণ্যগন্ধা, ৫৪) সুপ্রসন্না, ৫৫) শশীমুখী, ৫৬) প্রভা, ৫৭) চন্দ্রবদনা, ৫৮) চন্দ্রা, ৫৯) চন্দ্রাসহোদরী, ৬০) চতুর্ভুজা, ৬১) চন্দ্ররূপা, ৬২) ইন্দিরা, ৬৩) ইন্দুশীতলা, ৬৪) আহ্লাদিণী, ৬৫) নারায়নী, ৬৬) বৈকুন্ঠেশ্বরি ৬৭) হরিদ্রা ৬৮) সত্যা, ৬৯) বিমলা, ৭০) বিশ্বজননী, ৭১) তুষ্টি, ৭২) দারিদ্রনাশিণী, ৭৩) ধনদা, ৭৪) শান্তা, ৭৫) শুক্লামাল্যাম্বরা, ৭৬) শ্রী, ৭৭) ভাস্করী, ৭৮) বিল্বনিলয়া, ৭৯) হরিপ্রিয়া, ৮০) যশস্বীনি, ৮১) বসুন্ধরা, ৮২) উদারঙ্গা, ৮৩) হরিণী, ৮৪) মালিনী, ৮৫) গজগামিনী, ৮৬) সিদ্ধি, ৮৭) স্ত্রৈন্যাসৌম্যা, ৮৮) শুভপ্রদা, ৮৯) বিষ্ণুপ্রিয়া, ৯০) বরদা , ৯১) বসুপ্রদা, ৯২) শুভা, ৯৩) চঞ্চলা, ৯৪) সমুদ্রতনয়া, ৯৫) জয়া, ৯৬) মঙ্গলাদেবী, ৯৭) বিষ্ণুবক্ষাস্থলাসিক্তা, ৯৮) বিষ্ণুপত্নী, ৯৯) প্রসন্নাক্ষী, ১০০) নারায়নসমাশ্রিতা,
১০১) দারিদ্রধ্বংসিণী, ১০২) কমলা, ১০৩) সর্বপ্রদায়িনী, ১০৪) পেঁচকবাহিণী, ১০৫) মহালক্ষ্মী, ১০৬) ব্রহ্মাবিষ্ণুশিবাত্মিকা, ১০৭) ত্রিকালজ্ঞানসম্পূর্ণা, ১০৮) ভুবনমোহিনী। প্রাতঃকালে মা লক্ষ্মীর নিম্নলিখিত নাম উচ্চারনে দারিদ্রতা নিবারণ হয়ঃ-
লক্ষ্মীঃ শ্রীঃ কমলা বিদ্যা মাতা বিষ্ণুপ্রিয়া সতী। পদ্মালয়া পদ্মহস্তা পদ্মাক্ষী পদ্মসুন্দরী। ভূতানামীশ্বরী নিত্যা মতা সত্যাগতা শুভা। বিষ্ণুপত্নী মহাদেবী ক্ষীরোদতনয়া ক্ষমা। অনন্তলোকলাভা চ ভূলীলা চ সুখপ্রদা। রুক্মিনী চ তথা সীতা মা বৈ বেদবতী শুভা।
এতানি পুণ্যনামানি প্রাতরুত্থায় যঃ পঠেৎ। মহাশ্রিয়মবাপ্নোতি ধনধান্যমকল্মষম্। বঙ্গানুবাদ- শ্রী, কমলা বিদ্যা, মাতা, বিষ্ণুপ্রিয়া, সতী, পদ্মালয়া, পদ্মহস্তা, পদ্মাক্ষী, পদ্মসুন্দরী, ভূতগণের ঈশ্বরী, নিত্যা, সত্যাগতা, শুভা, বিষ্ণুপত্নী, ক্ষীরোদতনয়া, ক্ষমাস্বরূপা, অনন্তলোকলাভা, ভূলীলা, সুখপ্রদা, রুক্মিনী, সীতা, বেদবতী- দেবী লক্ষ্মীর এসকল নাম। প্রাতে উত্থান কালে যিনি দেবীর এই পুন্য নামাবলী পাঠ করেন, তিনি বিপুল ঐশ্বর্য ও নিস্পাপ ধনধান্য প্রাপ্ত হন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here