ব্রিজ পারাপারে দিতে হয় টাকাঃ আর টাকা না দেওয়ায় মদ্যপ যুবকের হাতে আক্রান্ত মহিলা সিভিক পুলিশ

0
309

রঞ্জিত সর্দার, দক্ষিণ ২৪ পরগনাঃ- ব্রিজ পারাপার হতে গেলে দিতে হবে টাকা। আর টাকা না দিলে ব্রিজের এপার থেকে ওপারে যাওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয় । আর ব্রিজ পারাপার হওয়ার সময় টাকা না দেওয়ায় মদ্যপ যুবকদের হাতে আক্রান্ত হলে এক মহিলা সিভিক পুলিশ। এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ভাঙ্গড় থানার চালতা বেড়িয়া ব্রিজে । আহত মহিলা সিভিক পুলিশ জাহেদা খাতুন (২৫), বর্তমানে তিনি কলকাতায় কসবা থানার সিভিক পুলিশ এ কর্মরত। ঘটনা সূত্রে জানা যায়, ভাঙ্গড় থানার চালতা বেড়িয়া এলাকায় রাস্তা পারাপারের মাঝে রয়েছে মাঝে রয়েছেএকটি ব্রিজ। আর সেই ব্রিজ পারাপার হতে গেলে টাকা দিতে হয় স্থানীয় কয়েকজন যুবকদের। এমনই অভিযোগ গ্রামবাসীদের। আর টাকা না দিলে বন্ধ করে দেওয়া হয় ব্রিজের রাস্তা। এমনই ঘটনা ঘটলো এক মহিলা সিভিক পুলিশের উপরে। যেখানে গতকাল দুপুর ১ টা নাগাদ কলকাতা কসবা থানা থেকে ডিউটি ছেড়ে বাড়ি ফিরছিলেন মহিলা সিভিক পুলিশ জায়েদা খাতুন। এরপর বাড়ি ফেরার সময় ভাঙ্গড় থানার চালতা বেড়িয়া ব্রিজের মুখে পথ আটকে দাঁড়ায় কয়েকজন মদ্যপ যুবক। আর ওই ব্রিজ পারাপার হতে মহিলা সিভিক পুলিশের টাকা চায় তারা এবং টাকা দিতে অস্বীকার করায় উভয়পক্ষের মধ্যে বেঁধে যায় বচসা। এরপর গাড়ি থেকে নামিয়ে রাস্তায় ফেলে ওই মহিলা সিভিক পুলিশ কে রাস্তায় ফেলে এলোপাতাড়ি মারধর করে কয়েকজন মদ্যপ যুবক। এই ঘটনায় গুরুতর আহত হয় মহিলা সিভিক পুলিশ জায়েদা খাতুন। তিন অভিযুক্ত মদ্যপ যুবকের বিরুদ্ধে ভাঙ্গড় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আহত মহিলা। ঘটনার তদন্তে নেমে স্থানীয় যুবক বাবলু মোল্লাকে গ্রেফতার করে ভাঙ্গড় থানা পুলিশ। তাই বাবলু মোল্লার অভিযোগ, আমি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয় ঐ মহিলা আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। মহিলা’র অভিযোগের ভিত্তিতে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ভাঙ্গড় থানা পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here